কয়েক দিন আগেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে তাঁকে খুন করার চেষ্টার অভিযোগ তুলেছিলেন বনগাঁর বিজেপি প্রার্থী শান্তু ঠাকুর। এবার তাঁর বিরুদ্ধে পাল্টা বড়সড় অভিযোগ উঠল। বনগাঁর বিজেপি প্রার্থীর বাড়ি থেকে সকেট বোমা উদ্ধার করল গাইঘাটা থানার পুলিশ। 

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার সকাল ন'টা নাগাদ গোপন সূত্রে খবর পেয়ে পুলিশ মতুয়া ঠাকুরবাড়ির কামনা সাগরের পাশৈ একটি নির্মীয়মাণ ঘরে হানা দেয়। সেখান থেকে ছ'টি তাজা সকেট বোমা উদ্ধার হয়। 


যদিও বোমা উদ্ধারের এই ঘটনা তৃণমূলের চক্রান্ত বলে অভিযোগ করেছেন বিজেপি প্রার্থী। তাঁর অভিযোগ, এ সবকিছুর পিছনে রয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূল জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এমন কী, বোমা উদ্ধারের সময় পুলিশ কেন তাঁকে কিছু জানালো না, সেই প্রশ্নও তুলেছেন বনগাঁর বিজেপি প্রার্থী। যদিও এই ঘটনায় এখনও জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

বনগাঁয় নির্বাচনের ঠিক আগে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে শান্তনু ঠাকুরের গাড়ি। গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। সেই সময়েও তাঁকে খুনের চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছিলেন শান্তনু ঠাকুর। সেবারেও জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দিকেই অভিযোগের তির ছিল তাঁর। অন্যদিকে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও শান্তনু ঠাকুর-সহ বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে সুপারি কিলার দিয়ে তাঁকে খুনের চক্রান্তের অভিযোগ দায়ের করেছেন পুলিশে। 

বনগাঁয় এ বার ঠাকুরবাড়িরই আর এক সদস্য মমতাবালা ঠাকুরের সঙ্গে লড়াই শান্তনুর। মতুয়া ঠাকুড়বাড়ির কর্তৃত্ব নিয়েও দু' পক্ষের বিবাদ দীর্ঘদিনের। 

গত বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকে টাকা উদ্ধার হয়েছিল। এবার বোমা উদ্ধার হল আর এক বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ঠাকুরের বাড়ি থেকে।