বাজেটে পেট্রোল, ডিজেলের উপরে আমদানি শুল্ক বৃদ্ধি এবং সেস বসানোর জের। এবার ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে সরকারকে হুঁশিয়ারি দিলেন বাস, মিনিবাস এবং ট্যাক্সি মালিকরা। এ দিন কলকাতায় নিজেদের মধ্যে বৈঠকের পরে ভাড়া বৃদ্ধির জন্য সরকারকে ১৫ দিন সময় বেঁধে দিয়েছে বেসরকারি পরিবহণের সঙ্গে যুক্ত মালিক সংগঠনগুলির নেতারা। 

বাজেটে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের ঘোষণার জেরে ডিজেলের দাম লিটার পিছু দুই থেকে আড়াই টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। তার ফলেই এবার ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছেন বাস, মিনিবাস এবং ট্যাক্সি মালিকদের সংগঠনগুলির যৌথ মঞ্চ। বাস এবং মিনিবাসের ভাড়া ২৫ শতাংশ করে বাড়ানোর দাবি জানানো হয়েছে। ট্যাক্সিতে উঠলেই চল্লিশ টাকা ভাড়ার দাবি জানানো হয়েছে। 

আরও পড়ুন- আশা আকাঙ্খা ও বিশ্বাসের বাজেট, প্রশংসায় পঞ্চমুখ মোদী

বর্তমানে বেসরকারি বাস এবং মিনিবাসের ন্যূনতম ভাড়া যথাক্রমে সাত এবং আট টাকা। ট্যাক্সিতে উঠলেই দিতে হয় তিরিশ টাকা। মালিক সংগঠনগুলির দাবি, এক ধাক্কায় লিটার পিছু প্রায় আড়াই টাকা ডিজেলের দাম বাড়ায় তাঁদের ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে। ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে ইতিমধ্যে পরিবহণ দফতরকে চিঠিও দেওয়া হয়েছে। দাবি না মানা হলে ১৫ দিন পর বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। সেক্ষেত্রে ধর্মঘটের পথেও হাঁটতে পারেন বেসরকারি পরিবহণের সঙ্গে যুক্ত মালিক সংগঠনগুলি। 

শেষবার ২০১৮ সালের জুন মাসে রাজ্যে বেসরকারি বাস, মিনিবাস এবং ট্যাক্সির ভাড়া বৃদ্ধি হয়েছিল। তার আগে অবশ্য সরকারের উপরে চাপ বাড়াতে ব্যস্ত সময় ছাড়া কম বাস চালানো, ধর্মঘটের মতো পদক্ষেপ করেছিলেন বাস, ট্যাক্সি মালিকরা। যার জেরে ভোগান্তি হয়েছিল আমজনতার। বাজেটে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির জেরে ফের সেই পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিল।