রাজীব কুমারের খোঁজে শুক্রবার দিনভর জোরদার তল্লাশি চালালো সিবিআই। আইপিএস অফিসারের খোঁজে হানা দেওয়া হল দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার একটি অভিজাত রিসর্টে। শুধু তাই নয়, কলকাতাতেও আইপিএস কোয়ার্টার্স-সহ পার্ক স্ট্রিট এবং ক্যামাক স্ট্রিটের বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালায় সিবিআই অফিসারদের বেশ কয়েকটি দল। রাজীবের খোঁজ পেতে তাঁর স্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলা হয়েছএ বলে জানা গিয়েছে। 

এ দিন দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার বিষ্ণুপুর থানা এলাকার সাতগাছিয়ায় একটি অভিজাত রিসর্টে হানা দেয় সিবিআই গোয়েন্দাদের একটি দল। রিসর্টের ভিতরে ঢুকে তল্লাশি চালান তাঁরা। ওই রিসর্টে রাজীব কুমার লুকিয়ে থাকতে পারেন, সূত্র মারফত সেই খবর পেয়ে এ দিন হানা দেন সিবিআই গোয়েন্দারা। রিসর্টের ভিতরে গিয়ে কর্মীদের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি গত কয়েকদিনে কারা কারা রিসর্টে এসেছেন, সেই নামের তালিকাও খতিয়ে দেখেন সিবিআই আধিকারিকরা। এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ওই রিসর্টে তল্লাশি চালানোর পরে ফিরে যান কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকরা। কলকাতা এবং জেলা মিলিয়ে এ দিন মোট ছ'টি জায়গায় তল্লাশি চালায় সিবিআই। 

আরও পড়ুন- রাজীবকে বাঁচাতেই কি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ, সোশ্যাল মিডিয়ার নাম করে মমতাকে খোঁচা বাবুলের

তল্লাশি চালানোর পাশাপাশি রাজীব কুমারের সন্ধান পেতে তাঁর স্ত্রী সঞ্চিতা কুমারের সঙ্গেও কথা বলেছে সিবিআই। রাজীব কোথায় রয়েছেন, কোন ফোন নম্বর ব্যবহার করছেন, এই সমস্ত তথ্য তাঁর থেকে জানতে চাওয়া হচ্ছে বলেই সূত্রের খবর।

আলিপুর আদালতে ফের আগাম জামিনের আবেদন জানিয়েছেন রাজীব কুমার। সেই মামলার শুনানি হবে শনিবার। রাজীবের আইনজীবীর মাধ্যমে সেকথা সিবিআই গোয়েন্দাদের জানিয়েও দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যেই এ দিন বিষ্ণুপুর-সহ মোট ছ'টি জায়গায় রাজীবের খোঁজে তল্লাশি চালালেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। বৃহস্পতিবারই আলিপুর আদালত জানিয়ে দিয়েছিল, রাজীবকে গ্রেফতারে কোনও বাধা নেই সিবিআই-এর।