শুভজিৎ পুততুণ্ড, বারাসত-তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত হল গোটা এলাকা। গভীর রাতে বাইরে থেকে দুষ্কৃতী এনে বাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ। এলাকায় চলল ব্যাপক বোমাবাজি, গুলি। ঘটনাটি ঘটেছে বসিরহাটের হাসনাবাদ থানার নওয়াপাড়ায়। ঘটনাস্থলে হাসনাবাদ থানার পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি সামাল দেয়। রাতে ঘটনার পরও এলাকা এখনও থমথমে।

আরও পড়ুন-করোনা বিধি অমান্য করেই স্কুলে চলছে শিশুদের পরীক্ষা, কাঠগড়ায় বেসরকারি স্কুল

জানাগেছে, হাসনাবাদের ওই এলাকায় এলাকা দখল নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্য়ে দীর্ঘদিন ধরে বিবাদ চলছিল। মঙ্গলবার রাতে ইয়াসিন আলি নামে এক তৃণমূল কর্মীকে টার্গেট করে আলিম নামে আরও একজন। ইয়াসিনকে এলাকা ছাড়া করতে আমতলা মোড়ে আলিম তার দলবল নিয়ে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি করে দুষ্কৃতীরা।

আরও পড়ুন-ডাকাতির উদ্দেশ্য়ে জড়ো হওয়া ৬ দুষ্কৃতী গ্রেফতার, ধৃতদের কাছ থেকে উদ্ধার ধারাল অস্ত্র

তৃণমূল কর্মী ইমাম আলি মোল্লার অভিযোগ, পঞ্চায়েত নির্বাচনে নির্দল প্রার্থী হিসেবে জয়ী হয়েছিল আলিম। তারপর থেকেই ইমামের উপর তার ক্ষোভ ছিল বলে অভিযোগ। এদিন রাতে ইমামের বাড়িতে হামলা চালায় আলিমের দলবল। আমতলার মোড়ে তাঁর চায়ের দোকানে ভাঙচুর চালানো হয়। পরে ঘরে ঢুকে হামলা চালায় আলিম ও তার দলবল। শুধু তাই নয়, সময়মতো ঘটনাস্থলে পুলিশ না পৌঁছলে তাঁর গোটা পরিবারকে মেরে ফেলত বলে দাবি তৃণমূলকর্মী ইমাম আলির।

এদিন রাতে হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় হাসনাবাদ থানার পুলিশ। দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন জখম হয়। পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি সামাল দেয়। হামলার নেপথ্য়ে এলাকা দখলের লড়াই রয়েছে বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের।