নামী সংস্থার ম্যাঙ্গো ড্রিংকের মধ্যে পাওয়া গেল মরা টিকটিকি। আর তা খেয়েই অসুস্থ হয়ে পড়ল বছর চারেকের একটি শিশু। চাঞ্চল্যকর এই অভিযোগ উঠেছে দক্ষিণ চব্বি পরগণার বারুইপুর থানার অন্তর্গত সাহাপাড়া এলাকায়। ক্ষুব্ধ জনতা ওই সংস্থা মাল সরবরাহকারী গাড়িতে এ দিন হামলাও চালায়। 

শিশুটির পরিবারের অভিযোগ, এ দিন সকালে তার মা রুম্পা মহাপাত্র পাড়ারই একটি দোকান থেকে ছেলেকে ওই ম্যাঙ্গো ড্রিংকের একটি প্যাকেট কিনে দেন। কিন্তু খাওয়ার সময় স্ট্রতে আটকে যায় পানীয়। শিশুটি তার মাকে সেকথা জানানোয় প্যাকেট কাটেন রুম্পাদেবী। অভিযোগ, তখনই তিন দেখেন প্যাকেটের মধ্যে মরা টিকটিকি রয়েছে। এর পরেই গোটা বিষয়টি ওই দোকানে জানানোর পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দাদেরও জানানো হয়। চিকিৎসার জন্য শিশুটিকে বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। শিশুটিকে চব্বিশ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। 

এর পর বেলার দিকে ওই সংস্থার মাল সরবরাহকারী গাড়ি এলাকায় এলে তা আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয়রা। রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয় ওই নরম পানীয়ের প্যাকেট। পরে পুলিশ এসে গাড়িটিকে আটক করে। শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ জানানো হয়েছে। থানা থেকে সংস্থার প্রতিনিধিদেরও ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে খবর। 

শিশুটির বাবা আনন্দ মহাপাত্র বলেন, 'নামী সংস্থার প্যাকেট করা পানীয়ের মধ্যেই যদি টিকটিকি থাকে তাহলে আমরা কার উপর ভরসা করব? এই ঘটনায় আমরা রীতিমতো আতঙ্কিত।' যদিও এই ঘটনায় এখনও অভিযুক্ত সংস্থার তরফে কোনও বক্তব্য পাওয়া সম্ভব হয়নি।