ইগোর লড়াইতেই আন্দোলনকারী জুনিয়র চিকিৎসকদের সঙ্গে রাজ্যে সরকারের আলোচনা শুরু হচ্ছে না বলে মনে করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি আন্দোলনকারী চিকিৎসকদেরও যে বিষয়টি নিয়ে নমনীয় হওয়া প্রয়োজন, তা সাফ জানিয়ে দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। দিলীপবাবুর মতে, চিকিৎসকরা আগে কাজে ফিরুন, তার পাশাপাশি কথাও চলুক। 

এ দিন দলের রাজ্য দফতরে সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ বলেন, 'বিষয়টি এখন ইগোর প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। রোগীদের সমস্যা দূর করতে মুখ্যমন্ত্রী এবং চিকিৎসকরা সমাজের কাছে একইভাবে দায়বদ্ধ। রাজনৈতিক দল, পেশা, সব পরে। আগে মানুষের জীবন।' 

বিজেপি নেতার মতে, মুখ্যমন্ত্রী আগেই কথা বললে সমস্যা এতদূর এগতো না। তবে এখন রোগীদের হয়রানির কথা ভেবেই চিকিৎসকদের কাজে ফেরা উচিত বলে মনে করেন তিনি। একই সঙ্গে নিরাপত্তা নিয়ে চিকিৎসকদের দাবিকেও পূর্ণ সমর্থন করেছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, 'পশ্চিমবঙ্গের কেউই সুরক্ষিত নয়। আমার উপরে পঞ্চাশবার হামলা হয়েছে। এই পরিবেশের জন্য মুখ্যমন্ত্রী দায়ী। ডাক্তারবাবুরা মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া  করুন অসুবিধা নেই। তাঁদের দাবিগুলি ন্যায্য। কিন্তু সাধারণ মানুষ যাতে আপনাদের সেবা থেকে বঞ্চিত না হয়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে।'

দিলীপবাবুর পরামর্শ, এই ধরনের পরিস্থিতিতে কখনওই সব পক্ষের সব দাবি পূরণ হয় না। ফলে সমাজের স্বার্থে দু' পক্ষেরই  নমনীয় হতে হবে। রবিবারও ফের আলোচনার জন্য সরকারের কাছে নয়া শর্ত দিয়েছেন আন্দোলনকারী জুনিয় চিকিৎসকরা। এই পরিপ্রেক্ষিতে দিলীপ বলেন, 'আগে থেকে শর্ত দিলে তো আলোচনাই শুরু হবে না।'