কৌশিক সেন, রায়গঞ্জ- দূর্গাপুজো শেষ হতে না হতেই ঘরে ঘরে মা লক্ষ্মীর আরাধনায় সময়। আজ লক্ষ্মীপুজো। কিন্তু সেই দাপট আর নেই। করোনা যেন বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে সবকিছুর কাছে। পটের লক্ষ্মী, ছাঁচের লক্ষ্মী, কাঠামো লক্ষ্মী বিভিন্ন রকমের ঠাকুরের পসরা নিয়ে বসেন মৃৎশিল্পীরা। এবছর তার রং পুরোপুরি ম্লান হয়েছে।

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ অন্তরায় হয়ে দাড়িয়েছে গৃহলক্ষীদের লক্ষীলাভের পথে। রায়গঞ্জ শহর সংলগ্ন সুভাষগঞ্জের পালপাড়ায় মৃতশিল্পিদের গৃহবধুরা দীর্ঘ বছর ধরে লক্ষীর পট একে বেশ কিছুটাই অর্থ উপার্জন করতেন। এবারেও সেই আশায় স্বামীর বানানো মাটির সরার উপরে লক্ষীর ছবি একে লক্ষীর পট বানিয়ে তা বিক্রির জন্য পসার সাজিয়ে তারা বসেছিলেন। 

কিন্তু করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ভয়ে বেশির ভাগ বাড়িতেই ঘটপুজো হচ্ছে। ফলে লক্ষীর পটের সাজানো পসরা সেইভাবেই পড়ে রয়েছে। টুম্পা পাল নামে এক পটশিল্পী জানিয়েছেন, " প্রতি বছর এই সময় লক্ষীর পট বানিয়ে আমরা বাড়ির মহিলারা কিছু উপার্জন করি। এবার করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ভয়ে বিক্রি কার্যত নেই। লক্ষীদেবী আরাধনার পসরা সাজিয়েও এবার লক্ষীলাভ থেকে আমরা বঞ্চিত। "