সঞ্জীব কুমার দুবে, পূর্ব মেদিনীপুর- শুভেন্দু অধিকারীর সমর্থনে প্রথমবার অফিস খুলেছিল পুরুলিয়ায়। সেখানে শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামীরা বাগমুন্ডি অফিস তৈরি করেছিলেন। শুভেন্দুর নামে সহায়তা কেন্দ্র গড়ে তুলল দাদার অনুগামীরা। নিজের গড় পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথিতে শুভেন্দুবাবু সহায়তা কেন্দ্র খুলল তাঁর অনুগামীরা।

আরও পড়ুন-তৃণমূলের কোপে শুভেন্দু ঘনিষ্ট কণিষ্ক পান্ডা, সরিয়ে দেওয়া হল জেলা সম্পাদকের পদ থেকে

কাঁথিতে রাতারাতি বদলে গেল তৃণমূলের গুমটি ইউনিয়নের অফিস। সেখানে তৈরি হল শুভেন্দুবাবুর সহায়তা কেন্দ্র খুলল তাঁর অনুগামীরা। শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ কনিষ্ক পাণ্ডা বলেন, ''বাংলার মানুষের জন্য প্রত্যেক বিধানসভা কেন্দ্রে এরকরকম সহায়তা কেন্দ্র খোলা হবে। আমরা সাধারণ মানুষের সমস্য়ার কথা জেনে যথা সম্ভব সাহায্য করার চেষ্টা করব। শুধু কাঁথি নয়, সারা বাংলায় সহায়তা কেন্দ্র গড়ে তোলাই আমাদের টার্গেট''। 
আরও পড়ুন-'শুভেন্দুর সঙ্গে আমায় জড়াবেন না- পোস্টার সমর্থন করি না', TMC-র বৈঠকের পর বলেন রাজীব

কনিষ্ক পান্ডা বলেন, ''দুয়ারে সরকারের চেয়েও, বাংলায় এখন শুভেন্দু অধিকারীকে দরকার। শুভেন্দু অধিকারী বমানেই উন্নয়ন। শুভেন্দু মানেই যুব সম্প্রদায়ের হৃদয়ের সঙ্গম। শুভেন্দু মানেই খেঁটে মানুষের জন্য আন্দোলনের প্রতিক। এখানে কোনও দলের ব্যাপার নেই। যেদিন রাজনৈতিক দল লাগবে, সেদিন সবাই দেখে নেবেন। শুভেন্দুর ভবিষ্যতের জন্য ভাবার কারও প্রয়োজন নেই। দিদিকে যতক্ষণ পর্যন্ত সরাতে পারছি, ততদিন আমাদের আন্দোলন চলবে''। প্রসঙ্গত, তৃণমূলের বিরুদ্ধে দলবিরোধী মন্তব্য করায় শুভেন্দু ঘনিষ্ঠ কনিষ্ক পান্ডাকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। সেকারণে তিনি তৃণমূলকে স্বাগত জানিয়েছিলেন।