ইঞ্জিন ছাড়াই ছুটল পাথর বোঝাই মালগাড়ি। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের মুরারই থানার রাজগ্রাম গোপালপুর শিল্পাঞ্চলে। ইঞ্জিন ছাড়া মালগাড়ি ছুটতে দেখে মুহূর্তের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। রাজগ্রাম স্টেশনের কাছে লাইনচ্যুত হওয়ায় শেষ রক্ষে হয়। 

রাজগ্রাম স্টোন চিপস কোম্পানিতে নিয়মিত পাথর বোঝাই করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বিক্রি করা হয়। সেই মতো দুদিন ধরে কয়েকটি বগিতে পাথর বোঝাই করা হচ্ছিল।
এরকম ১৪ টি বগি হঠাৎ চলতে শুরু করে। প্রায় ৪০ কিলোমিটার বেগে ছুটতে থাকে পাথর বোঝাই বগিগুলি। অবস্থা বেগতিক দেখে স্থানীয় মানুষজনও সচেতন করতে চিৎকার শুরু করে দেয়। লাইন থেকে সকলকে সরে যেতে চিৎকার করে বলা হয়। খবর দেওয়া হয় রাজগ্রাম ষ্টেশনে। ফলে আগেই রেলগেট বন্ধ রেখে মানুষকে সতর্ক করা হয়। ১৪ টি বগির মধ্যে বেশ কয়েকটি বগি বিভিন্ন জায়গায় লাইনচ্যুত হয়ে যায়।

রাজগ্রাম রেলগেট পর্যন্ত আসে চারটি বগি। সেই চারটি বগিও রেলগেটের কাছে লাইনচ্যুত হয়ে যাওয়ায় কিছুটা স্বস্তি মেলে রেল কর্তৃপক্ষের। পাথর শিল্পাঞ্চলের জন্য বিশেষ লাইন থাকায় ট্রেন চলাচলে কোনও ব্যহত হয়নি। রাজগ্রাম পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আসগর আলি বলেন, মালগাড়ির বগি ঢোকার পর হ্যান্ডব্রেক দিয়ে লাইন আলাদা করে দেওয়া হয়। এরপর চেনের সাহায্যে বগি বেঁধে পাথর বোঝাই করে বিভিন্ন রাজ্যে পাঠানো হয়।

এক্ষেত্রে হ্যান্ড ব্রেক দিয়ে লাইন আলাদা করা ছিল না। ফলে কোনওভাবে চেন ছিঁড়ে বগিগুলো ছুটতে শুরু করে। এলাকার মানুষ দেখতে পাওয়ায় কোনও জীবনহানির ঘটনা ঘটেনি। যদিও এ নিয়ে মুখ খুলতে চাননি রেলের কোনও আধিকারিক।