অবসরের দিন মানেই  সহকর্মীদের থেকে উপহার পাওয়া। পাল্টা সহকর্মীদের আব্দার মেনে খাওয়ানোর ব্যবস্থাও করেন অনেকে। এসবেই স্মরণীয় হয়ে থাকে কর্মজীবনের শেষ দিনটি। নদিয়ার নাকাশিপাড়ার বিদ্যুৎ দফতরের অফিসে কর্মরত শান্তিরঞ্জন বিশ্বাস অবশ্য কর্মজীবনের শেষ দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতে অন্যভাবে ভেবেছিলেন। অবসর নেওয়ার দিন নিজের দফতরেই রক্তদান শিবিরের আয়োজন করলেন তিনি। 

শনিবার অবসর নিলেন নাকাশিপাড়ার বিদ্যুৎ দফতরে অ্যাসিস্ট্যান্ট ক্যাশিয়ার পদে কর্মরত শান্তিরঞ্জন বিশ্বাস। ৩৭ বছরেরও বেশি সময় ধরে চাকরি করার পর এ দিন অবসর নিলেন তিনি। তাঁর সহকর্মীরা জানিয়েছেন, বরাবরই সমাজসেবামূলক কাজ করতে ভালবাসেন শান্তিরঞ্জনবাবু। কর্মজীবনের শেষ দিনেও আর্তদের জন্য কিছু করার ভাবনা ছিল তাঁর। আর সেই ভাবনা থেকেই নিজের দফতরেই এ দিন রক্তদান শিবিরের আয়োজন করেন শান্তিরঞ্জনবাবু। সেখানে তাঁর চল্লিশজনেরও বেশি সহকর্মী রক্তদান করেন। শান্তিরঞ্জনবাবু অবশ্য সংবর্ধনাও দেন তাঁর সহকর্মীরা। 

বেথুয়াডহরির বাসিন্দা শান্তিরঞ্জনবাবু বলেন, 'আমি চেয়েছিলাম আমার চাকরি জীবনের শেষ দিনটা উৎসবের মধ্যে দিয়ে শেষ হোক। রক্তদানের থেকে বড় উৎসব আর কী হতে পারে। আমাদের রাজ্যে ব্লাড ব্যাংকগুলিতে মাঝে মধ্যেই রক্ত সঙ্কট দেখা দেয়। সেকথা মাথায় রেখেই আমি এই উদ্যোগ নিয়েছি।'

নাকাশিপাড়া ডিভিশনের ডিভিশনাল ম্যানেজার সুশান্ত ঘোষ জানান, 'আমাদের দফতরের অ্যাসিস্ট্যান্ট ক্যাশিয়ার হিসেবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব সামলেছেন শান্তিরঞ্জন বাবু। রক্ত সঙ্কট মেটাতে তাঁর এই উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তাই আমরা সবাই মিলে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছি। চাকরি জীবনেও প্রচুর সমাজসেবামূলক কাজ করেছেন তিনি।'