গোটা নভেম্বর মাস পাহাড়েই কাটাবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বুধবার রাজভবন থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে। ১ নভেম্বর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত দার্জিলিং -এ থাকবেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। দীর্ঘ এক মাসের এই উত্তরবঙ্গ সফরের কারণ এখনও জানাযায়নি। সেখানে কোনও কর্মসূচি আছে কিনা সে বিষয়েও রাজভবন থেকে কিছুই জানানো হয়নি। তবে শিলিগুড়িতে একদিন সাংবাদিক বৈঠক হবে বলে জানা গিয়েছে।। অন্যান্যবার উত্তরবঙ্গ সফরে গেলেও এত দীর্ঘ সময় সেখানে থাকেননি তিনি। 
তার এই দীর্ঘ এক মাসের সফর ঘিরে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জল্পনা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, বিমল গুরুং ফিরে আসায় পাহাড়ে বদলাতে পারে রাজনৈতিক সমীকরণ। সেই সমীকরণ বুঝতেই কি তার এই দার্জিলিং সফর, তাই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন। 
প্রসঙ্গত, এখন একরকম আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বারবার খবরের শীর্ষে উঠে আসছে তাঁর নাম। সন্ত্রাসের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়েছে বাংলা কিছুদিন আগে এমন কথায় শোনা গিয়ছিল তাঁর মুখে। বারবার তাঁর কথায় তিনি আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এই রাজ্যাপালকেই পঙ্গপাল বলা হয়েছিল কিছুদিন আগে, যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে একরকম তরজা শুরু হয়ে যায়। এক পোস্টারে রাজ্যপালের নামের পাশে দেখা যায় লেখা আছে পঙ্গপাল। এমনকি সেই পোস্টারে তাঁকে বিজেপির দালাল বলেও সম্বোধন করা হয়। এর পরে পুজোর সময় রাজ্যপালকে দেখা গিয়েছিল প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ভট্টাচার্য -এর বাড়িতে। মহাষ্টমীর দিন স্ব-স্ত্রীক সেখানে দেখা গিয়েছিল তাকে। এবার সেই রাজ্যপালই জগদীপ ধনখড়ই যাচ্ছেন পাহাড়ে, যার পিছনে অন্য কারণ দেখছে তৃণমূল।