নিম্নচাপের জেরে দক্ষিণবঙ্গে দুদিন ধরে টানা বৃষ্টি। লাগাতার বৃষ্টিতে নদী গুলির জলস্তর বেড়েছে। নদী বাঁধ ভেঙে গ্রামের পর গ্রাম জলমগ্ন। ঘরবন্দি অবস্থায় গ্রামবাসীরা। জলবন্দি অবস্থায় থেকে দুর্ভোগ বাড়ছে সাধারণ মানুষের। নদীর বাঁধ ভেঙে উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমার মিনাখা, হাড়োয়া, হিঙ্গলগঞ্জের বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন। চাষের জমিতেও নোনাজল ঢুকে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ফসল। এই অবস্থায় ইছামতী নদীর নোনাজল ঢুকল হিঙ্গলগঞ্জের গুরুত্বপূর্ণ বাজারে। 

জলমগ্ন অবস্থায় রয়েছে হিঙ্গলগঞ্জের এই গুরুত্বপূর্ণ। বাজারের মধ্য়ে কোথাও হাঁটু সমান জল, আবার কোথাও, কোমর সমান জল দাঁড়িয়ে রয়েছে। এলাকার এই বাজারটি নোনাজল ঢুকে যাওয়ার কারনে বাজারের মধ্যে থাকা বিভিন্ন দোকান ঘরগুলিও ক্ষতির আশঙ্কা করা হয়েছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে টানা বৃষ্টি চলছে হিঙ্গলগঞ্জে। ভারী বৃষ্টির কারনে ইছামতী নদীর জলস্তর বেড়ে যায়। নদীতে জলের পরিমান এতটাই বেড়ে যায় যে, নদীবাঁধ ছাপিয়ে জল ঢুকেছে বাজারে। বাজারের মধ্য়ে বন্ধ স্বাভাবিক কাজকর্ম। গাড়ি চলাচলেও সমস্যা দেখা দিয়েছে। 

শুধু ইছামতী নদী নয়, রায়মঙ্গল, কালিন্দী, গৌড়েশ্বর, বিদ্যাধরী নদীগুলিতেও জলস্তর বাড়ছে। জলের তোড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে নদীর বাঁধ। ইতিমধ্যেই সুন্দরবন লাগোয়া বেশ কিছু গ্রামে নদীর জল ঢুকে প্লাবনের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।