খড়গপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে ব্যবসায়ীদের জনমতকে নিয়ন্ত্রিত করতে বৈঠকে বসেছিলেন।  অথচ মাঝপথেই ছন্দপতন বৈঠকে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ ও প্রার্থী প্রেমচাঁদ ঝা-কে দেখেই ক্ষোভ উগড়ে দিলেন গোলবাজার এলাকার ব্যবসায়ীরা। আচমকা ব্য়বসায়ীদের এ ধরনের কথায় অস্বস্তিতে পড়ে যান দিলীপবাবু। প্রচারের মধ্য়েই ব্যাকফুটে চলে যান বিজেপির খড়গপুর উপনির্বাচনের বিজেপি প্রার্থী প্রেমচাঁদ ঝা।

ব্য়বসায়ীদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে বিজেপির থেকে শুধুই প্রতিশ্রুতি শুনে যাচ্ছেন তারা। বার বার রেলের আধিকারিকদের দুর্নীতির কথা বলা হলেও কোনও পদক্ষেপ করা হয়নি দলের তরফে। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে গোলবাজার এলাকার বিভিন্ন ব্যবসায়ীরাদরে অভিযোগ শোনার পর  প্রাক্তন রেলের ডিআরএম ও রেলের আধিকারিকদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ স্বীকার করে নেন দিলীপবাবু।

তিনি বলেন, মানুষের রায় নিয়ে দ্বিতীয়বার নতুন সরকার হয়েছে। যদি ফের বিজেপির বিধায়ক জেতে তাহলে সাংসদ ও বিধায়ক যৌথভাবে আমরা এই সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেব। সাংবাদিকদের সামনে বিব্রত দিলীপ ঘোষ বলেন, উন্নয়ন করার জন্য আমাদের কাউন্সিলরদের ভাঙিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন, বোর্ড গঠন করেছিলেন। উন্নয়ন করার দায়িত্ব ওনাদের ছিল, আমাদের নয়। তবে আমরা শান্তি আনতে পেরেছি।