কাটমানি ফেরতের দাবিতে আটকে রাখা হল তৃণমূলের দুই নেতা, নেত্রীকে। তাঁদের উদ্ধার করতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়লেন তৃণমূল বিধায়কও। রবিবার সন্ধায় ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার ধানতলা থানার আরংঘাটায়।

'দিদিকে বলো' কর্মসূচিতে রবিবার আরংঘাটা এলাকায় যান তৃণমূল নেতারা। তখনই বিক্ষোভের মুখে পড়েন রানাঘাট ২ নম্বর ব্লক তৃণমূল  সভাপতি এবং পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যরা। স্থানীয় মহিলাদের অভিযোগ, জব কার্ড করিয়ে দেওয়ার নাম করে তাঁদের থেকে প্রথমে সাতশো টাকা করে নিয়েছিলেন স্থানীয় তৃণমূল নেতারা। জব কার্ড হয়ে গেলে পাঁচ হাজার টাকা পাওয়া যাহে, এই প্রলোভন দেখিয়ে তাঁদের কাছ থেকে পরে আরো পাঁচশো টাকা করে নেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কিন্তু টাকা দেওয়ার পরে সাত বছর পেরিয়ে গেলেও এখনও জব কার্ড দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ, ফেরত দেওয়া হয়নি টাকাও। 

এই অভিযোগেই রবিবার এলাকায় গেলে রানাঘাট ২ নম্বর ব্লক তৃণমূল সভাপতি সঞ্জীব ঘোষ এবং রানাঘাট ২ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য সাথী ঘোষকে আটকে রেখে পাওনা টাকা ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয় মহিলারা। খবর পেয়ে রানাঘাট পূর্ব বিধানসভার বিধায়ক সমীর পোদ্দার বিষয়টি মেটাতে গেলে তাঁকেও বিক্ষোভের সম্মুখীন হতে হয়। অভিযোগ, বিধায়ক অভিযুক্ত ব্লক সভাপতি সঞ্জীব ঘোষের হয়ে সাফাই দিতে গেলে বিক্ষোভকারী মহিলারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। তাঁরা দাবি করেন, জব কার্ড লাগবে না, যে টাকা তাঁরা জমা দিয়েছেন, ওই নেতারা সেটাই ফেরত দিয়ে দিন। টাকা চাইলেই অভিযুক্ত নেতারা তাঁদের ঘোরাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন বিক্ষোভকারীরা।  দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকার পর বিধায়ক বিষয়টির পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করার এবং টাকা ফেরতের আশ্বাস দিলে অবশেষে বিক্ষোভ তুলে নেন মহিলারা। যদিও, এই বিক্ষোভের কথা অস্বীকার করেছেন বিধায়ক।