নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদের নামে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় হিংসা এবং তাণ্ডবের ঘটনা অব্যাহত। বাহাত্তর ঘণ্টা পরেও পরিস্থিতির কোনও উন্নতি নেই। বরং ক্রমেই নতুন নতুন এলাকা থেকে গন্ডগোলের খবর আসছে। এই পরিস্থিতিতে এবার বেশ কিছু উপদ্রুত এলাকায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দিল রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী নিজেই এ দিন বিবৃতি জারি করে এ কথা জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তাঁর দাবি, বহিরাগতরা ঢকেই রাজ্যে অশান্তি সৃষ্টি করছে। 

এ দিন বিবৃতিতে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, 'সরকার বার বার বলা সত্ত্বেও কিছু বহিরাগত সাম্প্রদায়িক শক্তির উস্কানিতে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় হিংসা ছড়ানোর চক্রান্ত করছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে নিরুপায় হয়ে মুর্শিদাবাদ, মালদহ, উত্তর দিনাজপুর, হাওড়া, উত্তর চব্বিশ পরগণার বসিরহাট ও বারাসত মহকুম এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার বেশ কিছু জায়গায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে।'

শনিবারও বিবৃতি জারি করে কড়া বার্তা দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। শান্তি রক্ষার আবেদন জানানোর পাশাপাশি তিনি স্পষ্ট জানান, সরকারি- বেসরকারি সম্পত্তি নষ্ট করে বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা হলে বরদাস্ত করা হবে না। যদিও, তার পরেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। বরং এ দিন সকাল থেকেও মুর্শিদাবাদ, উত্তর চব্বিশ পরগণা, দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার বিভিন্ন এলাকা থেকে অশান্তির খবর মিলেছে।