মাত্র তিন মাস আগে বিয়ে, এরই মধ্যে গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় খুনের অভিযোগ পরিবারের। ঘটনাটি ঘটেছে, অশোকনগরের বনবনিয়া এলাকায় । ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে অশোকনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে মৃতার পরিবার । তদন্তে নেমে বধূর স্বামীকে গ্রেফতার করল অশোকনগর থানা। 

রবীন্দ্রসঙ্গীতে অশ্লীল শব্দ ব্যবহার, রোদ্দুর রায়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

পুলিশ জানিয়েছে মৃতার নাম তাপসী বিশ্বাস। গত ২৪ডিসেম্বর দেখাশোনা করে বিয়ে হয় অশোকনগরের নিচু কয়াডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা তাপসীর।  বনবনিয়ার বাসিন্দা পেশায় গেঞ্জি কারখানার কর্মী রুবেল দাসের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। মৃতার পরিবার জানিয়েছে,স্থানীয়দের কাছ থেকে সোমবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ খবর পায় তাপসীকে হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে । এরপর হাসপাতালে এসে জানতে পারে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে । 

ফের কলকাতায় করোনা আতঙ্ক, শরীরে চিনা ভাইরাস সন্দেহে হাসপাতালে মহিলা

মৃতার শরীরে একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে । তাই পরিবারের অনুমান তাকে প্রথমে মারধর করে পরে ঝুলিয়ে খুন করা হয়েছে । কী কারণে বিয়ের তিন মাসের মধ্যেই খুনের ঘটনা ঘটবে, প্রশ্ন করা হলে মৃতার দাদা দিবাকর বিশ্বাস জানান তাপসীর স্বামী রুবেলের সঙ্গে তার এক আত্মীয়ার পরকীয়ার সম্পর্ক ছিল ।যা নিয়ে মাঝেমধ্যে স্বামী- স্ত্রী অশান্তি হতো । তাপসীর মৃত্যুর পেছনে এটাই প্রধান কারণ বলে মনে করছে পরিবারের লোকেরা । 

পরিবারের তরফে অশোকনগর থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে । ঘটনায় অশোকনগর থানার পুলিশ অভিযুক্ত রুবেল দাসকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার দুপুরে বারাসত আদালতে পাঠিয়েছে। পাশাপাশি মঙ্গলবার মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য বারাসাত জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।ধৃতের কঠিন শাস্তির দাবি করেছে পরিবার ।