বউমা এবং চার বছরের নাতনিতে বাঁচাতে গিয়ে মায়ের হাতে গুলিবিদ্ধ হল ছেলে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে হাওড়ার গোলাবাড়িতে। গুরুতর আহত অবস্থায় মনোজ শর্মা নামে ওই যুবককে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

জানা গিয়েছে গোলাবাড়ির নন্দলাল মিস্ত্রি লেনে একটি আবাসনে স্ত্রী, মেয়ে এবং মায়ের সঙ্গে থাকত পেশায় গাড়িচালক মনোজ। তাঁর স্ত্রী বেবি শর্মা পুলিশে হোমগার্ডের চাকরি করেন। স্ত্রীয়ের চাকরি নিয়ে মাঝেমধ্যেই দম্পতির মধ্যে বচসা বাঁধত বলে জানা গিয়েছে। 

সোমবার সকালেও কাজ থেকে বাড়ি ফিরে মদ্যপ অবস্থায় মনোজ তাঁর স্ত্রীকে কাজে যেতে বাধা দেন বলে অভিযোগ। তার পরেই আচমকা একটি বন্দুক বের করে স্ত্রী এবং নিজের চার বছরের মেয়েকে গুলি করতে যায় মনোজ। তখনই বউমা এবং নাতনি বাঁচাতে মনোজের হাত থেকে বন্দুক কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন তার মা রেনুকা শর্মা। ধস্তাধস্তিতে বন্দুক থেকে দু'টি গুলি ছিটকে গিয়ে লাগে মনোজের হাতে এবং কোমরে। 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। আহত মনোজকেও হাসপাতালে পাঠানো হয়। অভিযোগ, মনোজের ঘর থেকে মোট দু'টি বন্দুক এবং বেশ কিছু কার্তুজ পেয়েছে পুলিশ। কোথা থেকে মনোজের কাছে এই বন্দুকগুলি এল, কেনই বা সে এগুলি নিজের কাছে রেখেছিল, ওই যুবক একটু সুস্থ হলেই তা জানার চেষ্টা করবে পুলিশ। মনোজের মা রেনুকাদেবীকে আটক করেও জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ।