এক কোটি টাকা-সহ গ্রেফতার হলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের প্রাক্তন আপ্ত সহায়ক গৌতম চট্টোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গেই লক্ষ্মীকান্ত সাউ  নামে আরও এক সঙ্গীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার আসানসোল থেকে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। আদালতে তোলা হলে দু' জনকে চারদিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, আসানসোল স্টেশনে রবিবার সন্ধেবেলা গৌতম এবং লক্ষ্মীকান্ত দুই ব্যক্তিকে সন্দেহজনকভাবে ঘুরে বেড়াতে দেখা যায়। সন্দেহ হওয়ায় তাঁদের আটক করে তল্লাশি করে জিআরপি। তল্লাশিতে দু' জনের কাছ থেকে এক কোটি টাকা উদ্ধার হয়। খবর দেওয়া হয় আয়কর দফতরে। এর পরেই পুলিশ দু' জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

এর পরেই আদালতে তোলার সময় সংবাদমাধ্যমের সামনেই অন্যতম ধৃত লক্ষ্মীকান্ত সাউ স্বীকার করেন, ওই টাকা বিজেপি-র। দলের কাজের জন্যই সেই টাকা কলকাতায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলে দাবি করে লক্ষ্মীকান্ত। 

এই ঘটনার জেরে স্বভাবতই অস্বস্তিতে বিজেপি এবং দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। যদিও তাঁর দাবি, গৌতম চট্টোপাধ্যায় আগে তাঁর আপ্ত সহায়ক ছিলেন। কিন্তু এখন তিনি আর সেই দায়িত্বে নেই। যদিও গৌতমকে তিনি চেনেন বলে স্বীকার করে নিয়েছেন দিলীপ। তাঁর দাবি, গৌতম খড়্গপুরে দলের কর্মী হিসেবে কাজ করতেন। কোথা থেকে ওই টাকা এল, তা খোঁজ নিয়ে দেখা দরকার বলে জানান দিলীপ। ধৃত লক্ষ্মীকান্তের বয়ান অনুযায়ী সত্যিই ওই টাকা বিজেপি দলের কি না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

দিন কয়েক আগে ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষের গাড়ি থেকেও লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার হয়। তার পরেই বিজেপি নেতারা টাকা ছড়িয়ে ভোট কিনছেন বলে অভিযোগ তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব নেতাদের গাড়ির তল্লাশির নির্দেশ দেন তিনি। আসানসোলের স্থানীয় বিজেপি নেতারা অবশ্য এই ঘটনার পিছনে তৃণমূলের চক্রান্ত দেখছেন।