সাধারণ কেউ নয়, খোদ সাংসদের বাড়িতে একটি মোবাইল পৌছে দেওয়ার কথা ছিল। জেনে বুঝেই মোবাইলটি সরিয়ে ফেলেছিল ক্যুরিয়র সংস্থার ডেলিভারি বয়! মোবাইলের বাক্সে পাথর ভরে বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্ম-এর বাড়িতে হাজির হয়েছিল সে। ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অনলাইনে কেনাকাটায় প্রতারণার অভিযোগের কিনারা করে ফেলল পুলিশ। ধরা পড়েছে অভিযুক্ত ডেলিভারি বয়। মোবাইলটিও উদ্ধার করেছেন তদন্তকারীরা।

মালদহের হবিবপুরের দীর্ঘদিনের সিপিএম সাংসদ ছিলেন খগেন মুর্মু। লোকসভা ভোটের বিজেপিতে যোগ দেন। চলতি বছরে লোকসভা ভোটে এ রাজ্যে ১৮ আসনে জিতেছেন গেরুয়াশিবিরের প্রার্থীরা। মালদহ উত্তর কেন্দ্র থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছে খগেন মুর্মও।  জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে অনলাইন বিপণনী সংস্থায় একটি মোবাইলের অর্ডার দিয়েছিলেন তিনি। মোবাইলটির দাম প্রায় ১২ হাজার টাকা।  গত সোমবার মালদহ শহরের মকদমপুরে সাংসদের বাড়িতে মোবাইলটি দিয়ে যান স্থানীয় একটি ক্যুরিয়র সংস্থার কর্মী। খগেন মুর্ম-এর দাবি, যে সংস্থার মোবাইল অর্ডার করেছিলেন তিনি, মোবাইলটি সেই সংস্থার বাক্সে ছিল না।  তাতেও অবশ্য তিনি কোনও আপত্তি করেননি। কিন্তু বাক্সটি যখন খোলা হয়, তখন দেখা যায়, মোবাইল নয়, বাক্সে রয়েছে একটি পাথর! অনলাইন বিপণনী সংস্থা অ্যামাজনের বিরুদ্ধে মালদহের ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্ম।

বুধবার মালদহ শহরের মাধবপুর এলাকা থেকে মোহন হালদার নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সাংসদ খগেন মর্মু যে মোবাইলটির অর্ডার দিয়েছিলেন, সেই মোবাইলটি ধৃতের কাছে পাওয়া গিয়েছে। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, মালদহের একটি ক্যুরিয়ার সংস্থায় ডেলিভারি বয় হিসেবে চাকরি করে মোহন। ওই ক্যুরিয়া সংস্থার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ বহু নাম করা অনলাইন বিপণনী সংস্থা। মালদহে সেই সব বিপণনী সংস্থার সামগ্রী গ্রাহকদের কাছে সরবরাহ করে ওই ক্যুরিয়ার সংস্থাটিই। সাংসদ খগেন মর্মুর মোবাইলটি ওই ক্যুরিয়র সংস্থার মারফৎ পাঠিয়েছিল অনলাইন বিপণনী সংস্থা অ্যামাজন। পুলিশের বক্তব্য, সাংসদের মোবাইলটি চুরি করেছিল ধৃত মোহন হালদার।