নেপথ্যে কি আত্মীয়ের সঙ্গে বিবাহ-বর্হিভূত সম্পর্ক? পুরুলিয়ায় সিভিক ভলান্টিয়ার খুনে একজন সন্দেহভাজন আটক করেছে পুলিশ। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সূত্রে খবর তেমনই। নিহতের বাড়ি গিয়ে বুধবার পরিবারের লোকেদের সঙ্গে দেখা করেন জেলা যুব তৃণমূলের সভাপতি সুশান্ত মাহাতো। স্ত্রীকে চাকরির আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: সাতসকালে ভরা বাজারে হাজির দলমা হাতির পাল, হুলুস্থুলকাণ্ড গিধনীতে

মৃতের নাম অঙ্গদ কুমার মাহাতো। বাড়ি, ঝালদা থানার কেন্দুয়াডি গ্রামে। স্থানীয় তুলিন গ্রামের ফাঁড়িতে সিভিক ভলান্টিয়ার হিসেবে কর্মরত ছিলেন তিনি। স্থানীয় সূত্রে খবর, বুধবার সন্ধ্য়ায় এই তুলিন গ্রামেই সাপ্তাহিক বাজারে যান অঙ্গদ। যখন কেনাকাটা করছিলেন, তখন আচমকাই পিছন থেকে মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ মারে এক ব্যক্তি। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন ওই সিভিক ভলান্টিয়ার। কে এমন কাণ্ড ঘটাল? হামলাকারীর পিছনে ধাওয়া করেছিলেন আশেপাশের লোকজন ও কর্তব্যরত অন্য এক সিভিক ভলান্টিয়ার। কিন্তু তার আর নাগাল পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: রাতভর বৃষ্টিতে জলমগ্ন, দেখুন কাঁথি শহরের জলছবি

কেন এমনটা ঘটল? সূত্রের খবর, নিহত অঙ্গদ কুমার মাহাতো বিবাহিত ছিলেন। স্ত্রী ও সন্তানকে ভরা সংসার। সম্প্রতি এক নিকট আত্মীয়ের সঙ্গে বিবাহ-বর্হিভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন তিনি। এই নিয়ে পরিবারে অশান্তি চলছিল। তারজেরেই  খুন করা হয়েছে ওই সিভিক ভলান্টিয়ারকে। ঘটনায় একজন সন্দেহভাজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদও করছে পুলিশ। যদিও প্রকাশ্যে এ বিষয়ে মুখ খুলতে চাইছেন না তদন্তকারীরা। তবে এলাকায় এখনও আতঙ্ক রয়েছে যথেষ্টই।