Asianet News BanglaAsianet News Bangla

TMC in Hariyana: গোয়া-অসম-ত্রিপুরার পর নজরে হরিয়ানা, বড় দায়িত্বে সুখেন্দু শেখর রায়

হরিয়ানায় তৃণমূলের প্রধানের দায়িত্ব পেলেন রাজ্যসভার সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়। বৃহঃষ্পতিবার তৃণমূলের তরফে বিবৃতি জারি করে এই কথা জানানো হয়েছে।

Rajya Sabha MP Sukhendu Shekhar Roy takes over as TMC chief in Haryana
Author
Kolkata, First Published Nov 25, 2021, 10:51 PM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

খাতায় কলমে নয়, বাস্তাবের মাটিতে সর্বভারতীয় তকমা পেতে যে উঠে পড়ে লেগেছে তৃণমূল কংগ্রেস তা আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল। গোয়া, ত্রিপুরার পর তৃণমূলের নজর যে এবার হরিয়ানা(Trinamool in Haryana) তা ক্রমশ স্পষ্ট হচ্ছিল বিগত কয়েকদিন ধরেই। এবার এই রাজ্যেই গুরু দায়িত্ব পেলেন প্রবীণ তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যসভার সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়(Rajya Sabha MP Sukhendu Shekhar Roy)। হরিয়ানায় তৃণমূলের প্রধানের দায়িত্ব পেলেন তিনি। যা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। বৃহঃষ্পতিবার তৃণমূলের(TMC) তরফে বিবৃতি জারি করে এই কথা জানানো হয়েছে।

এদিকে পবন বর্মা, কীর্তি আজাদের পর সম্প্রতি তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ অশোক তানওয়ার। হরিয়ানা প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্ব সামলেচ্ছেন অশোক তানওয়ার। একসময়ে রাহুল গান্ধীর ঘনিষ্ঠ সহযোগী হিসেবে পরিচিত ছিলেন এই নেতা। এবার তিনি তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় জোর চর্চা শুরু হয়েছে বিভিন্ন মহলে। সহজ কথায় গোয়ার পরে হরিয়ানাতেও কংগ্রেসকে কমজোর করতে চাইছে তৃণমূল-কংগ্রেস। কংগ্রেস নেতা অশোক তানওয়ার তৃণমূলে যোগ নিয়ে এমনই মত হাত শিবিরের একাধিক বরিষ্ঠ নেতার।

আরও পড়ুন- প্রশাসনিক জটেই পিছিয়ে গেল হাওড়া পুরসভার নির্বাচন, বাড়ছে রাজনৈতিক চাপানউতর
এদিকে রাহুল ঘনিষ্ঠ তানওয়ার এখন আর কংগ্রেসে(Congress) না থাকলেও বিভিন্ন রাজ্যে তাঁর কংগ্রেসি নেটওয়ার্ক অত্যন্ত ভাল বলেই শোনা যায়। এমনকী যুব কংগ্রেসের সভাপতি হিসাবে গোয়া, দিল্লি, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ-সহ বিভিন্ন রাজ্যে নিজের ভিত তৈরি করেছিলেন তিনি। সেই লাভের গুড়ও আগামীতে তৃণমূল পেতে পারে বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। সবথেকে বেশি লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে হরিয়ানাতেই। এবার সেই রাজ্যে সুখেন্দু শেখর রায়ের তৃণমূল প্রধানের দায়িত্ব প্রাপ্তি বিশেষ ভাবে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

আরও পড়ুন- বাবার হাতেই যৌন নির্যাতনের শিকার নাবালিকা, প্রতিবেশীর সহায়তায় গ্রেফতার কাকাও

এদিকে রাহুল ঘনিষ্ঠ তানওয়ার পাশে দাঁড় করিয়ে দিল্লি থেকেই তৃণমূল সুপ্রিমো বলেছিলেন, ‘আমি হরিয়ানা যেতে চাই। অশোক জি আমাকে যখনই ডাকবেন, তখনই যাব।’ আর তাঁর এই মন্তব্যের পরেই যা নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়ে যায় দিল্লির রাজ্য-রাজনীতিতেই। আর তারপরেই হরিয়ানার ময়দানে তৃণমূলের প্রথম পদক্ষেপ কংগ্রেস ছাড়াও গেরুয়া শিবিরের উপরেও যে চাপ বাড়াবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। সহজ কথায় ত্রিপুরা, অসম, গোয়ার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লক্ষ্য যে এবার হরিয়ানা তা এবার আবারো নতুন করে স্পষ্ট হয়ে গেল।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios