অজানা জন্তুর পায়ের ছাপকে ঘিরে বাঘের আতঙ্ক বাঁকুড়ার জঙ্গলমহলে। এ দিন সকাল থেকেই এই আতঙ্ক প্রবলভাবে ছড়িয়ে পড়েছে বাঁকুড়ার বারিকুল থানার খেজুরখন্না গ্রামে। গ্রামবাসীদের দাবি, ওই ছাপ বাঘেরই। যদিও, বাঘকে এখনও পর্যন্ত কেউ দেখেননি। গরু, ছাগলের মতো গবাদি পশুর উপরেও হিংস্র কোনও প্রাণীর আক্রমণের ঘটনা ঘটেনি। 

গ্রামবাসীদের দাবি গত প্রায় তিন দিন ধরে গ্রামের খেত জমির ভিজে মাটিতে ওই অজানা জন্তুর পায়ের ছাপ দেখা গিয়েছে। শুক্রবারের পর শনিবার এবং রবিবারও পায়ের ছাপ দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন গ্রামবাসীরা। অনেকের মনেই প্রায় দু' লালগড়ে রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার চলে আসার স্মৃতি মনে পড়ে যাচ্ছে। আর তাতেই বেড়েছে আতঙ্ক। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, এলাকার জঙ্গলে যে সমস্ত জন্তু, জানোয়ার থাকে এই ছাপ তাদের নয়। 

বন দফতর অবশ্য এই পায়ের ছাপকে বাঘের বলে এখনই মানতে নারাজ। যদিও গ্রামবাসীদের সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন বনকর্মীরা। 

আরও পড়ুন- তেরো মাস পার, বাঘ খুনের তদন্তে লালগড়ে কেন্দ্রীয় কর্তা

২০১৮ সালের শুরুতে লালগড়ের জঙ্গলে হঠাৎই রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের খোঁজ মিলেছিল। ঝাড়খণ্ডের জঙ্গল থেকে দেড় হাজার কিলোমিটার পথ পেরিয়ে বাঘটি লালগড়ে চলে এসেছিল বলে অনুমান করেছিল বন দফতর। অনেক চেষ্টার পরেও অবশ্য সেই বাঘকে ধরতে ব্যর্থ হয় বন দফতর। শেষ পর্যন্ত ২০১৮ সালের ১৩ এপ্রিল শিকার উৎসব চলাকালীন বাঘঘরার জঙ্গলে বাঘটিকে হত্যা করেন আদিবাসীরা। বাঁকুড়ার জঙ্গলেও লালগড়ের মতো বাঘই হানা দিয়েছে কি না, তা অবশ্য এখনও স্পষ্ট নয়।