বিজেপিতে গিয়ে ভুল করেছেন। তৃণমূল ফিরতে চান। বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির হারের পরেই তৃণমূলে ফেরার রাস্তা ধরতে চান মালদার সরলা মুর্মু। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে হবিবপুর আসনে সরলাকে প্রার্থী করা হয়েছিল। তারপরেও তিনি মালদা থেকে লড়ার আবদার করেছিলেন। আবদার না পূরণ হতেই বিজেপিতে চলে যান তিনি। 

বিজেপি গিয়েও সেখানে ভরাডুবি। এবার ফিরতে চান তিনি। তবে দলের একাংশ বলছেন, ঠিক ভোটের মুখে নিজেদের দল ছেড়ে অন্য দলে গিয়ে বিশ্বাসভঙ্গ করেছেন এই সব নেতা নেত্রী। কিন্তু দলের শীর্ষ নেতৃত্ব যদি তাঁদের ফেরাতে চান, তবে কিছু বলার নেই। 

সরলা মুর্মুর দাবি বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশ হওয়ার পরেই তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলত্যাগী নেতা নেত্রীদের ফেরার আহ্বান জানিয়েছিলেন। সেই ডাকে সাড়া দিতে চান তিনি। তৃণমূলে ফেরার সুযোগ যদি তাঁকে দেওয়া হয়, তাহলে আর নিরাশ করবেন না দলকে, এমনই জানান সরলা। 

তিনি বলেন বিজেপিতে গিয়ে ভুল করেছেন। সেই ভুলের জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন। যদি জেলার রাজনৈতিক মহলের মতে বিজেপিতে গিয়েও ভোটের প্রচারে বিশেষ দেখা যায়নি সরলাকে। বিজেপিতে যোগ দিয়ে সরলা বলেছিলেন, তৃণমূলে পদ দেওয়া হলেও, সেখানে কাজ করতে দেওয়া হয় না। দলে শৃঙ্খলা নেই। বিজেপিতে থেকে তিনি কাজ করতে চান বলে জানিয়েছিলেন। 

সরলা মুর্মু দলত্যাগ করার পর হবিবপুর আসন থেকে তৃণমূলের প্রার্থী হন প্রদীপ বাস্কে। সরলা মুর্মু জানান, মালদা জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ হিসেবে কাজ করতে চান তিনি। জেলা পরিষদে যে আস্থা ভোট রয়েছে সেখানে সদস্য হিসেবে অংশ নিয়ে তৃণমূলের হয়ে ভোট দিতে চান সরলা। 

রাগ বা অভিমান করে দল থেকে বেড়িয়ে যাওয়া অনেক নেতা নেত্রী দলে ফিরতে চাওয়া প্রসঙ্গে তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেছেন, এবিষয়ে দল এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি। পরে এই বিষয়ে জানিয়ে দেওয়া হবে দলের তরফে।