জলের অভাবে ধুকঁছে পৃথিবী। ভারতেও পড়তে শুরু করেছে এর প্রভাব। সুদূর বেঙ্গালুরুতেও জলকষ্টে রাস্তায় নেমেছে মানুষ। আগেভাগে তাই রাজ্যবাসীকে জল সংরক্ষণের ডাক দিল জলপাইগুড়ির বামন পাড়া যুবক সংঘ। 

ক্রমাগত আকাশছোঁয়া বাড়ি কেড়ে নিচ্ছে শহরের জলস্তর। ভিন রাজ্যে জলের জন্য শুরু হয়েছে হাহাকার। পরিবেশবিদরা জানাচ্ছেন, সামনে গঙ্গা থাকার জন্য় বেঁচে যাচ্ছে কলকাতা। এখনই সতর্ক না হলে শহর কলকাতাতেও পড়তে পারে জলের টান। সেই আশঙ্কা থেকেই সরব হয়েছেন জলপাইগুড়ির বামন পাড়ার বাসিন্দারা। এবার দুর্গাপুজোয় তাঁদের থিম জল বাঁচাও, পৃথিবা বাঁচাও। 

পুজোর ভাবনায় রয়েছেন মিঠুন সাহা। মণ্ডপে ঢোকার শুরু থেকেই ধরা পড়বে তার শিল্পীসত্তা। প্রতিমা গড়েছেন দীনবন্ধু পাল। দুজনের যোগ্য সঙ্গতে রূপ পেয়েছে জল বাঁচাও, পৃথিবী বাঁচাওয়ের ভাবনা। পুজোর উদ্যোক্তারা জানান, সবুজায়ন ধরা পড়বে তাঁদের পুজোয়। পৃথিবী বাঁচাতে প্রতিদিনই চারা গাছ বিতরণ করবে পুজো কমিটি। সব মিলিয়ে প্রকৃতি বাঁচাতে পুজোর আঙিনায় সচেতনার প্রচার চালাবেন দুর্গাপুজোর উদ্যোক্তারা।

এবার ৬৮ বছরে পা দিচ্ছে জলপাইগুডি়র বামন পাড়ার পুজো। এলাকাবাসীরা জানান, ঐতিহ্যবাহী এই পুজো আসলে নতুন ও পুরাতনের মিশেল। সব মিলিয়ে দেবী পুজোরভাবনাকে রূপ দিতে খরচ হবে ১২ লক্ষ টাকা। কমিটির আশা, প্রতিবারের মতো এবারও মণ্ডপে উপচে পড়বে ভিড়। দেবী দর্শনের পাশাপাশি সচেতনাতার পাঠ নেব জলপাইগুড়িবাসী।