রাজ্য উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা পরিষদ থেকে আবেদন করা হয়েছিল ২০২১-এর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার জন্য। সেই নিয়ে বিস্তারিত ভাবে ক্ষতিয়ে দেখে নয়া সিদ্ধান্ত নিল এবার রাজ্য সরকার। পিছিয়ে দেওয়া হল মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। আগামী বছর জুন মাসে হবে বোর্ড। বুধবার ঘোষণা করলেন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে এখনই জানানো হচ্ছে না বিস্তারিত সূচী। শীঘ্রই ঘোষণা করা হবে বলে বৈঠকে জানানো হবে। 

আরও পড়ুন- 'রাজ্যে চৈত্র সেল চলছে', তৃণমূলের সভার দিনেই আক্রমণ দিলীপের

লকডাউনের জেরে ২০২০-র পরীক্ষাতেই পড়েছিল কোপ। এরপর থেকে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল স্কুলের দরজা। অনলাইনে পরবর্তী সময় ক্লাস শুরু হলেও এভাবে সিলেবাস শেষ করা সম্ভবপর নয় বলেই দাবী করেছিল বেশ কিছু স্কুল। যার যেরেই ৩০ থেকে ৩৫৫ শতাংশ সিলেবাস কমিয়ে দেওয়া সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তবে পরীক্ষা সূচী নিয়ে এর আগে সেভাবে কিছুই জানানো হয়নি। তবে হয়নি যথা সময় টেস্ট পরীক্ষাও। তাই এবার পরীক্ষাই পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল সরকার। 

কবে স্কুল সঠিকভাবে খোলা সম্ভব হতে তা এখনও নিশ্চিত নয়। তাই এখনই পরীক্ষা নিয়ে বড় কোনও পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না। সেই সূত্রেই এক ধাক্কায় তিন মাস পিছিয়ে গেল মাধ্যমিক ও দুই মাস পিছিয়ে গেল উচ্চমাধ্যমিক। এই আবেদন করা হয়েছিল মধ্যশিক্ষা পর্যদের পক্ষ থেকে। সেই দিক বিবেচনা করে দেখেই বুধবার এমন ঘোষণা করলেন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।