নিসঙ্গ জীবনযাত্রা থেকে খোলা হাওয়ার স্পর্শ। পুজোর মাঝে প্রবীণদের জন্য সেই ব্যবস্থাই করল চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেট। যার জেরে গঙ্গাবক্ষে ভ্রমণ করে দক্ষিণেশ্বর দর্শন করলেন প্রবীণ নাগরিকরা।   

নবমীর সকাল , মেঘলা আকাশ । এই মনোরম আবহাওয়ায় গঙ্গাবক্ষে ভ্রমণ। আর গন্তব্যস্থল যদি দক্ষিণেশ্বর মন্দির হয় তাহলে তো আর কথাই নেই । শহরের সিনিয়র সিটিজেনদের নিয়ে এদিন সকালে দুটি লঞ্চে করে সেই পরিকল্পনাকে রূপ দেয় চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেট। চুচূড়া, চন্দননগর, ভদ্রেশ্বর , শ্রীরামপুর , রিষড়া, উত্তরপাড়া এবং ডানকুনি। কমিশনারেটের অধীনে থাকা এই থানাগুলির প্রত্যেক এলাকা থেকে বেশকিছু প্রবীণ নাগরিক  এদিন দক্ষিণেশ্বর ভ্রমণে অংশগ্রহণ করেন ।

গঙ্গাবক্ষে ভ্রমণের জন্য এদিন চন্দননগর এবং শ্রীরামপুর থেকে দুটি লঞ্চ ছাড়ে । কমিশনার হুমায়ুন কবীর জানান , ভ্রমণার্থীদের জন্য  দক্ষিণেশ্বরে ভোগের ব্যবস্থাও করা হয়েছে । তাঁরা যাতে পুজোয় একটু আনন্দ পান তার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করা হচ্ছে ।  মাসখানেক আগে স্পর্শ নামে একটি অ্যাপ চালু করেছিলেন হুমায়ুন কবীর । মূলত যে সমস্ত প্রবীণ নাগরিক নিঃসঙ্গ জীবন কাটান , তাঁদের সুরক্ষিত রাখতেই এই প্রকল্প । সেই পরিকল্পনারই বাস্তবায়নে এই উদ্যোগ নিয়েছে চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেট।