চার লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে অপহরণকারীদের হাত থেকে রেহাই পেয়েছিলেন স্কুল শিক্ষক। কিন্তু পুলিশের হাত থেকে শেষ পর্যন্ত বাঁচল না অপহরণকারীরা। অপহৃত স্কুল শিক্ষক মুক্তি পাওয়ার প্রায় তিন সপ্তাহ পর ছয় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল কাঁকসা থানার পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে খবর, গত ২২ নভেম্বর পানাগড় রেল স্টেশন থেকে দেবকুমার দেব নামে এক স্কুলশিক্ষককে অপহরণ করা হয়। এর পর পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপণ বাবদ চার লক্ষ টাকা আদায় করে দুষ্কৃতীরা। দুর্গাপুর সিটি সেন্টার এলাকা থেকে ওই টাকা আদায় করে দুষ্কৃতীরা। এর ২ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর কোটা বলে একটি এলাকা থেকে ওই স্কুল শিক্ষককে উদ্ধার করে পুলিশ। 

ঘটনার পর থেকেই অপহরণকারীদের ধরার চেষ্টা করছিল কাঁকসা থানার পুলিশ। যে নম্বর থেকে হুমকি ফোন এসেছিল তার সূত্র ধরে এবং অপহৃত শিক্ষকের কাছ থেকে অপহরণকারীদের চেহারার বর্ণনা শুনেই অভিযুক্তদের চিহ্নিত করে পুলিশ। মঙ্গলবার অভিযান চালিয়ে ছয় অভিযুক্তকেই গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের বাড়ি বুদবুদ এবং বাঁকুড়ার বিভিন্ন জায়গায়। যে স্করপিও গাড়ি এবং মোটরসাইকেল এই অপহরণের সময় ব্যবহার করা হয়েছিল, সেগুলিও বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। 

তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, অপহরণের পরে ওই স্কুল শিক্ষককে বুদবুদের কাছেই একটি জঙ্গলের মধ্যে রেখে  দিয়েছিল অপহরণকারীরা। পরে স্করপিও গাড়িতে করে বিভিন্ন জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাঁকে। 

ধৃত ছ' জনের নাম রাহুল মণ্ডল, মইনুল মিধ্যা, হাসিনুর মিধ্যা, স্বপন শেখ, ইনাদুর মিধ্যা ও আনিসুর রহমান। ধৃতদের মঙ্গলবার দুর্গাপুর আদালতে তোলা হয়।  অভিযুক্তদের জেরা করে এই অপহরণকারী দলের সঙ্গে আর কেউ যুক্ত কি না, তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।