ব্যবধান মাস খানেকের। তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে ফের উত্তেজনা ছড়াল দক্ষিণ ২৪ পরগণার বাসন্তীতে। বাড়ির ফেরার পথে গুলিবিদ্ধ হলেন এক যুব তৃণমূলকর্মী। ঘটনার পর তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। ওই তৃণমূলকর্মীর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে।

আক্রান্তের নাম সইদুল গাজি। বাসন্তীর হোগল ডুগরি এলাকা থাকেন তিনি। এলাকায় যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সক্রিয় কর্মী হিসেবে পরিচিত সইদুল। প্রতিদিন বেশ রাত করেই বাড়ি ফেরেন তিনি। শুক্রবারও তার অন্যথা হয়নি। জানা গিয়েছে, রাতে অটো থেকে নেমে হেঁটে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন সইদুল। তখন তাঁকে ঘিরে ধরে চারজন দুষ্কৃতী। ওই তৃণমূলকর্মীকে লক্ষ্য করে এলোপাথারি গুলি চালাতে শুরু করে তারা। রক্তাক্ত অবস্থায় রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন সইদুল।  তাঁর চিৎকার শুনে স্থানীয় বাসিন্দারা যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছন, ততক্ষণে পালিয়েছে হামলাকারীরা। গুরুতর আহত অবস্থায় সইদুল গাজিকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আক্রান্তের বুকের ডানদিকে গুলি লেগেছে। তবে তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

আরও পড়ুন: যখন তখন শিংয়ের গুঁতো, ষাঁড় ধরবে কে, আতঙ্ক দুর্গাপুরে

কিন্তু যুব তৃণমূল কর্মী সইদুল গাজিকে লক্ষ্য করে গুলি চালালো? এলাকার তৃণমূল নেতৃত্বের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন খোদ বাসন্তী ব্লকের যুব তৃণমূল নেতা জালাল লস্কর। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন শাসকদলের স্থানীয় নেতৃত্ব। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়, বসেছে পুলিশ পিকেট।  উল্লেখ্য, মাস খানেক আগে বাসন্তীতে গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারান এক তৃণমূলকর্মী। আহত হন আরও বেশ কয়েকজন। চলে বোমাবাজিও। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের গুলি চলল এলাকায়।