ফের অসচেতনতার বলি হল দুই যুবক। বছরের শুরুতেই পাবজি গেম প্রাণ কেড়ে নিল তাদের। ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রামনগরে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, কানে ইয়ারফোন গুঁজে পাবজি গেম খেলতে গিয়েই যাবতীয় বিপত্তি। 

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, বছরের প্রথম দিন পিকনিকের আনন্দে মেতেছিল সবাই। অন্যান্য দিনের মতো বেশকিছু যুবক অনলাইন গেম খেলতে রেললাইনে বসে পড়ে। দীঘা তমলুক রেল লাইনের ওপর পাবজি গেমে ডুব দেয় বিরামপুরের সুব্রত পাত্র ও  ফতেপুর গ্রামের অপূর্ব দাস। রাতে বিরামপুরের কাছে রেললাইনে বসে পাবজি গেম খেলছিল তারা। সেই সময়ে দীঘা থেকে হাওড়ার উদ্দেশ্যে যাওয়া কান্ডারী এক্সপ্রেসের ধাক্কায় প্রাণ হারায় দুই যুবক। 

রেল পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই দুই যুবক কানে হেডফোন লাগিয়ে  অনলাইন পাবজি গেম খেলছিল। তাম্রলিপ্ত এক্সপ্রেস হর্ন দেওয়া সত্ত্বেও হেডফোন থাকার কারণে শুনতে পায়নি। তবে কানে হেডফোন লাগিয়ে মৃত্যুর মুখে পড়ার ঘটনা এই প্রথম নয়। অতীতেও এই ধরনের অনেক ঘটনা ঘটেছে। একইভাবে বহুবার সচেতন করা সত্ত্বেও সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছে বহু যুবক, যুবতী।