আশঙ্কা ছিলই। এবার করোনা আতঙ্কে কোপ পড়ল বিশ্বভারতীর বসন্তোৎসবেও।  ইউজিসি-র নির্দেশ মেনে এ বছর বসন্তোৎসব বাতিল করার সিদ্ধান্ত বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ।

বিশ্বভারতীর বসন্তোৎসবের খ্যাতি জগৎজোড়া। প্রতিবছর দোল উপলক্ষ্যে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কত মানুষ আসেন শান্তিনিকেতনে! যতদিন যাচ্ছে, ভিড় যেন ততই বাড়ছে। সেই ভিড় মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছিল গত বছর। যারজেরে পদপিষ্ট হওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল বিশ্বভারতীর ক্যাম্পাসে। তাতেই প্রমাদ গোনেন কর্তৃপক্ষ। এবছর বসন্তোৎসবে বহিরাগতদের অংশগ্রহণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। শেষপর্যন্ত আসরে নামে রাজ্য সরকার। সিদ্ধান্ত হয়, ক্যাম্পাসে নয়, এবছর বসন্তোৎসব হবে পৌষমেলার মাঠে। মঞ্চ বাঁধার কাজও প্রায় শেষ। কিন্তু শেষবেলায় করোনাভাইরাসের আতঙ্ক ভেস্তে দিল সবকিছু।

আরও পড়ুন: করোনা বিশ্বজুড়ে প্রাণ কাড়বে ১.৫ কোটি মানুষের, ইতিমধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা লাখ ছাড়াল

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে বাদ আবির, প্রাক-বসন্ত উৎসবে উড়ল ফুলের পাপড়ি

চিন থেকে ভারত। করোনা ভাইরাস ঢুকে পড়েছে এ দেশেও। এখনও পর্যন্ত এই মারণ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ জন। পরিস্থিতি মোকাবিলা চরম সতর্কতা জারি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ইউজিসি বা বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুি কমিশন থেকে বিজ্ঞপ্তি এসেছে বিশ্বভারতীতেও। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ক্যাম্পাসে জমায়েত এড়িয়ে চলতে হবে। বিজ্ঞপ্তি পাওয়ার পর শুক্রবার সন্ধ্যায় বৈঠকে বসে বিশ্বভারতীর এগজিকিউটিভ কমিটি। সেই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এবছর আর বসন্তোৎসব হবে না। তবে প্রশাসনের তরফে কোনও আপত্তি তোলা হয়নি। বরং সাহায্যের আশ্বাস দেওয়া হয়।