লকডাউন শব্দটাই যা নেই, বাকি সবই যেন ক্রমেই বদ্ধ করে তুলছে পরিস্থিতি। কয়েকদিন আগে পর্যন্তও বহু মানুষ ঢালাও শপিং-এ ছিলেন ব্যস্ত। সামনেই উৎসবের মরসুম। তাই খানিক করোনার বিষাদ ভুলে স্বস্তির পালা। কিন্তু আদেও কি সেই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে স্বাভাবিক হতে পেয়েছেন সাধারণ মানুষ! সাফ কথা না। কারণ এবার পুজোয় প্রথম থেকেই কোপ বসিয়েছে হাইকোর্ট। 

এবার চোখ রাঙানি আবহাওয়ার। ঠিক ষষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্তই এবার মিলল ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস। আর সেই দিকে নজর রেখেই জেলা শাসকের পক্ষ থেকে সতর্কবার্তা পাঠানো হল দক্ষিণ ২৪ পরগনার পুজো কমিটি গুলিকে। নিম্নচাপের জেরে প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা, সঙ্গে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। যার জেরে ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে মণ্ডপ। তাই আগে থেকেই পরিস্থিতির দিকে কড়া নজর দেওয়ার নির্দেশ। 

ষষ্ঠীর দিন সকাল থেকেই আকাশের মেঘ ভার। এদিন দুই বঙ্গের বিভিন্ন জেলাতেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। তাই আগে থেকেই সতর্ক করা হল বিভিন্ন পুজো কমিটিকে। বাতাসে ঘণ্টায় গতিবেগ ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত থাকতে পারে। দুই ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলিসহ কলকাতা ভাসবে এই নিম্নচাপের ফলে হওয়া বৃষ্টিতে।