Asianet News BanglaAsianet News Bangla

২০২২ সালের গুরু পূর্ণিমা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, জেনে নিন কারণ ও বিশেষত্ব

যে কোনও দিন আপনি আপনার বড়দের কাছ থেকে, আপনার শিক্ষকদের কাছ থেকে আশীর্বাদ পেতে পারেন। কিন্তু গুরু পূর্ণিমার দিনে গুরুর আরাধনা করে তাঁর আশীর্বাদ পেলে আপনার জীবন সুখের হয়ে ওঠে। যে গুরু জ্ঞানের চোখ খুলে দেন তার কৃপা পেতে ২০২২ সালের গুরু পূর্ণিমার দিনে নিয়ম অনুসারে গুরুদের পূজা করা উচিত।
 

Guru Purnima 2022 is so important this year know the reasons and importance of this tithi BDD
Author
Kolkata, First Published Jul 3, 2022, 11:34 AM IST

গুরুদের উপাসনা এবং তাদের আশীর্বাদ পেতে ১৩জুলাই বুধবার গুরু পূর্ণিমার উত্সব উদযাপিত হবে। এই দিনে বেদের স্রষ্টা মহর্ষি ব্যাস জন্মগ্রহণ করেছিলেন বলে বিশ্বাস করা হয়। গুরু পূর্ণিমা ২০২২ ব্যাস জয়ন্তী হিসাবেও পালিত হয়। এই সমগ্র সৃষ্টির মধ্যে গুরুর স্থান সবচেয়ে বড়। তাঁকে সম্মান জানানোর কোনও নির্দিষ্ট দিন নেই। 
যে কোনও দিন আপনি আপনার বড়দের কাছ থেকে, আপনার শিক্ষকদের কাছ থেকে আশীর্বাদ পেতে পারেন। কিন্তু গুরু পূর্ণিমার দিনে গুরুর আরাধনা করে তাঁর আশীর্বাদ পেলে আপনার জীবন সুখের হয়ে ওঠে। যে গুরু জ্ঞানের চোখ খুলে দেন তার কৃপা পেতে ২০২২ সালের গুরু পূর্ণিমার দিনে নিয়ম অনুসারে গুরুদের পূজা করা উচিত।

গুরু পূর্ণিমা ২০২২ এই সময়ের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ 

এইবার গুরু পূর্ণিমা যা ১৩ জুলাই বুধবার পড়ে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এই সময়ে অনেক রাজ যোগ গঠিত হচ্ছে। এই সময়ে রুচক, ভদ্র, হংস ও ষ নামে ৪ টি রাজযোগ গঠিত হচ্ছে। বুধ গ্রহের অনুকূল অবস্থানের কারণে বুধাদিত্য যোগও রয়েছে। রাক্ষসদের গুরু শুক্রাচার্য তার বন্ধু গ্রহের সাথে বসে আছেন। এই সময়টাও খুবই উপকারী ও অনুকূল। এবার ২০২২ সালে গুরু পূর্ণিমার দিনে গঠিত বিশেষ যোগের কারণে এর গুরুত্ব বহুগুণ বেড়ে যায়। এতে গৃহীত গুরু দীক্ষা বা গুরু মন্ত্র দিয়ে জীবন সফল হতে পারে।

আরও পড়ুন- জানেন কি বৃষ্টির জল আপনাকে ঋণ থেকে মুক্তি দিতে পারে, শুধু মনে রাখুন এই নিয়মগুলি

আরও পড়ুন- কালসর্প দোষের প্রভাবে সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে যেতে পারে জীবন, জেনে নিন এই দোষ কাটান

আরও পড়ুন- নক্ষত্র পরিবর্তন করেছে রাহু, এর ফলে সুখে ভরে উঠবে এই ৩ রাশির ভাগ্য

গুরু পূর্ণিমার গুরুত্ব -
২০২২ সালের গুরু পূর্ণিমার দিনে, গুরুদের পূজা করে এবং তাদের আশীর্বাদ গ্রহণ করে, একজন ব্যক্তি মানসিক কষ্ট থেকে মুক্তি পায়। তার আত্মবিশ্বাস আরও দৃঢ় হয়। মহাবিশ্বে গুরুদের স্থান শীর্ষে উল্লেখ করা হয়েছে। গুরুর আশীর্বাদ ছাড়া দেবতাদের আশীর্বাদও ব্যর্থ হয়। তাই ২০২২ সালের গুরু পূর্ণিমার দিনে গুরুদের চরণ পূজা করা উচিত এবং গুরুর কাছ থেকে আশীর্বাদ নেওয়া উচিত। এতে মানুষের মনের সংশয় দূর হয়।
 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios