Asianet News BanglaAsianet News Bangla

গুরু পূর্ণিমার পূণ্য তিথিতে এইভাবে পুজো করুন, জেনে নিন কী কী উপকার মিলবে

শাস্ত্র অনুসারে, বেদের রচয়িতা মহর্ষি বেদ ব্যাস গুরু পূর্ণিমার দিনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। মহর্ষি বেদ ব্যাসের জন্মের পর থেকে বহু শতাব্দী ধরে গুরু পূর্ণিমার দিনে গুরু পূজার প্রথা চলে আসছে। জেনে নিন এই বছরের গুরু পূর্ণিমায় করা শুভ যোগ, মুহুর্তা ও পূজা পদ্ধতি-
 

Puja Vidhi in Guru Purnima 2022 like this and know what are the benefits BDD
Author
Kolkata, First Published Jul 13, 2022, 9:21 AM IST

১৩ জুলাই সারা দেশে পালিত হচ্ছে গুরু পূর্ণিমার পবিত্র উত্সব। হিন্দু ধর্মে পূর্ণিমা তিথিতে গঙ্গাস্নান ও দান করার বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। আষাঢ় মাসে যে পূর্ণিমা পড়ে সেটি গুরু পূর্ণিমা নামে পরিচিত। শাস্ত্র অনুসারে, বেদের রচয়িতা মহর্ষি বেদ ব্যাস গুরু পূর্ণিমার দিনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। মহর্ষি বেদ ব্যাসের জন্মের পর থেকে বহু শতাব্দী ধরে গুরু পূর্ণিমার দিনে গুরু পূজার প্রথা চলে আসছে। জেনে নিন এই বছরের গুরু পূর্ণিমায় করা শুভ যোগ, মুহুর্তা ও পূজা পদ্ধতি-

গুরু পূর্ণিমা শুভ মুহুর্ত ২০২২-

গুরু পূর্ণিমা ১৩ জুলাই সকাল ৪ টা থেকে পরের দিন বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই সকাল ১২ টা বেজে ৬ মিনিটে শেষ হবে। গুরু পূর্ণিমার দিন দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিট পর্যন্ত ইন্দ্র যোগ থাকবে। এই দিনে চন্দ্রোদয়ের সময় সন্ধ্যা ৭ টা বেজে ২০ মিনিট। ভাদ্র সকাল ৭ টা বেজে ৩২ মিনিট থেকে দুপুর ২ টা বেজে ০৮ মিনিট পর্যন্ত। এই দিনের রাহু কাল দুপুর ১২ টা বেজে ২৭ মিনিটে থেকে ২ টা বেজে ১০ মিনিট পর্যন্ত।  

গুরু পূর্ণিমায় তৈরি হচ্ছে শুভ যোগ-
আষাঢ় পূর্ণিমায় গ্রহের শুভ অবস্থানের কারণে অনেক রাজযোগ তৈরি হচ্ছে। এবার গুরু পূর্ণিমায় বৃহস্পতি, মঙ্গল, বুধ ও শনির শুভ মিলনে রুচক, ষ, হংস ও ভাদ্র যোগ তৈরি হচ্ছে। 

আরও পড়ুন- গুরু পূর্ণিমা উৎযাপন করতে, আপনার শিক্ষক বা গুরুকে পাঠান পবিত্র এই তিথির শুভেচ্ছা বার্তা

আরও পড়ুন- ২০২২ সালের গুরু পূর্ণিমা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, জেনে নিন কারণ ও বিশেষত্ব

আরও পড়ুন- গুরু পূর্ণিমায় ৪টি রাজযোগ গঠিত হচ্ছে, শুভ সময়ে পুজো করুন সব কাজে সাফল্য পাবেন

গুরু পূর্ণিমায় এভাবে পুজো করুন-
জ্যোতিষীদের মতে, গুরু পূর্ণিমায় পান, জলযুক্ত নারকেল, মোদক, কর্পূর, লবঙ্গ, এলাচ দিয়ে যথাযথভাবে পূজা করলে একশত বজস্নিয়া যজ্ঞের সমতুল্য ফল পাওয়া যায়। এতে ভক্তের মনস্কামনা পূরণ হয় বলে বিশ্বাস। পূর্ণিমা তিথিতে গঙ্গা স্নান সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু হয়। এটি চর্মরোগ ও হাঁপানিতে খুবই উপকারী। গুরু পূর্ণিমার দিনে, বৈদিক মন্ত্র জপ এবং বিষ্ণু সহস্রনাম পাঠ করা গুরুর বিশেষ কৃপা দেয় বলে বিশ্বাস করা হয়।  

 গুরু পূর্ণিমার রাতে খির দান করলে মানসিক শান্তি পাওয়া যায়। কথিত আছে যে এটি করলে ব্যক্তির কুণ্ডলীতে চন্দ্র শক্তিশালী হয়। ঋষি যাজ্ঞবল্যের আশীর্বাদে বটবৃক্ষকে জীবন দেওয়া হয়েছিল। তাই গুরু পূর্ণিমাতেও বট পূজা করা হয়। 

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios