করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এবার মৃত্যু হল বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেলারেল মাহেবুবে আলমের। রবিবার সন্ধ্যে সাড়ে সাতটা নাগাদ হাসপাতালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। গত ৪ সেপ্টেম্বর জ্বর নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে। ওই দিনই  তাঁর করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্ট আসে পজেটিভ। তারপর থেকেই মারাত্মক ছোঁয়াছে এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন। রবিবার হার মানেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। মাহেবুবে আলমের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মহম্মদ হামিদ ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 


শোকবার্তায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অ্যাটর্নি জেনারেলের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন। পাশাপাশি তিনি বলেছেন গোটা দেশের শ্রদ্ধার পাত্র ছিলেন মাহেবুবে আলম। আইনজীবী হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন তিনি। সবসময় ন্যায়ের পথে চলতেন। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করেন তিনি। পাশাপাশি অ্যাটর্নি জেনারেলের পরিবারের পাশে থাকার বার্তাও দিয়েছেন শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের ১৩তম অ্যাটর্নি জেনারেল ছিলেন তিনি। ১৯৭৫ সালে হাইকোর্টে আইনজীবী হিসেবে কাজ শুরু করেছিলেন। ২০০৮ সালে হাসিনা সরকার গঠনের পর ২০০৯ সালে ১৩ জানুয়ারি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে তাঁকে নিয়োগ করা হয়েছিল।

অন্যদিকে বাংলাদেশে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। আক্রান্তের হার প্রায় ১১.২৯ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে। শুধুমাত্র রবিবারই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৩২ জনের। শনিবার মৃত্যু হয়েছিল ৩৬ জনের। গোটা দেশে এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজারেরও বেশি মানুষের। দেশে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে তিন লক্ষেরও বেশি।