করোনাভাইরাস মহামারির প্রাদুর্ভাবে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই এখন ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জামের দারুণ অভাব। আর সেই অভাবটা মেনে নিয়েই প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যেতে হচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মীদের। আর তা করতে গিয়ে অনেকে নিজেরাই আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন কোভিড-১৯ রোগে। এবার এরকমই এক কোভিড আক্রান্ত স্বাস্থ্যকর্মী ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের পেট্রল ঢেলে পুড়িয়ে মারার হুমকি দিলেন তাদের প্রতিবেশীরাই। ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া উপজেলায়।

জানা গিয়েছে, ওই স্বাস্থ্যকর্মী পটিয়া উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে এমারজেন্সি অ্যাটেনডেন্ট হিসাবে কাজ করেন। গত সপ্তাহেই উপসর্গহীন ওই কর্মীর বাধ্যতামূলক করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হলে, ফলাফল আসে পজিটিভ। তারপর থেকে তাঁকে তাঁর বাড়িতেই হোম-আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তাঁর পরিবারের সদস্যরাও প্রত্যকে একই বাড়িতে কোয়ারেন্টাইন্ড তবে, তাঁরা ওই কর্মীর সংস্পর্শে আসছেন না।

এতসব ব্যবস্থা নেওয়ার পরও কিন্তু এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ওই কর্মী জানিয়েছেন, শনিবার রাত আটটা নাগাদ তাঁর বাড়ির সামনে এসে পাড়ার লোকজন অযথাই ঝামলা করে। তাঁরা সবরকম সতর্কতা নেওয়া সত্ত্বেও, বাড়ি থেকে কেউ বের হলে পরিণতি ভালো হবে না বলে হুমকি দেওয়া হয়। একপর্যায়ে এমন কথাও বলা হয়, বাড়ি থেকে তিনি বা পরিবারের কেউ বের হলেই গায়ে পেট্রল ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হবে।
 
এই ঘটনার পর স্বাভাবিকভাবেই ওই কর্মী অত্যন্ত উদ্বিহ্ন বোধ করছেন। বাড়ির ভিতরেও হামলা হতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন তিনি। হুমকির বিষয়টি ওই কর্মী পটিয়া উপজেলার মুখ্য স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকেও জানিয়েছেন। তিনি এই ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য স্থানীয় থানাকে নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে বাংলাদেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ক্রমশই খারাপ হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টায় ১০৩৪টি নতুন মামলার সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এই প্রথম একদিনে সেই দেশে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ১০০০ ছাড়ালো। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। সব মিলিয়ে বাংলাদেশে সোমবার পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্য়া ১৫,৬৯১ এবং মৃতের সংখ্যা ২৩৯।