মঙ্গলবার দুপুরে রাসবিহারীর এক নার্সিংহোমে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অভিনেতা মৃণাল মুখোপাধ্যায়। বেশ কয়েক মাস ধরে ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করছিলেন তিনি। তার স্বাস্থের অবনতী ঘটায় দিন পনেরো আগে নার্সিংহোমে ভর্তি করে পরিবার।  মৃণাল মুখোপাধ্যায় যেমন এক কৃতি অভিনেতা ছিলেন তেমনি তাঁর মেয়ে জোজোও  আজ সঙ্গীত জগতে এক পরিচিত নাম। 

মৃণাল মুখোপাধ্যায়ের মৃত্যু খবর ছড়িয়ে পড়তেই শোকের ছায়া নেমে আসে বাংলা চলচ্চিত্র জগতে। আর্টিস্টস ফোরাম -ও মৃণাল মুখোপাধ্যায়ের আত্মার শান্তি কামনায় শোকপ্রকাশ করে।

জনপ্রিয় এই অভিনেতাকে বড় পর্দায় শেষবার দেখাগিয়েছিল  'কেলো' ছবিতে। 'ব্যোমকেশ' ও 'চিড়িয়াখানা'-য়  গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি।  অভিনেতা নন, গায়ক হিসাবেও সত্তরের দশকে তিনি পরিচিতি পেয়েছিলেন।  পাঁচ দশক ধরে অভিনয় জগতের সঙ্গে তাঁর  যোগ ছিল নিবিড়।

বাংলা সিরিয়াল জগতেও এক জনপ্রিয় মুখ তিনি। সদ্য সমাপ্ত  'আমলকী' সিরিয়ালে বাড়ির কর্তার ভুমিকায় দর্শক তাঁকে পেয়েছিল। কিন্তু অসুস্থতার কারণে নিজেকে বিনোদন জগৎ থেকে সরিয়ে নেন তিনি। দীর্ঘ দুই বছর ধরে মাঝে-মধ্যেই  তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ছিলেন।

রাত ১০টা পর্যন্ত রাসবিহারীর মাইক্রোল্যাপ নার্সিংহোম-এ শায়িত থাকবে বলে সূত্রের খবর। মরদেহ টলিপাড়ায় নিয়ে যাওয়া হবে না বলেই জানা গিয়েছে। এই নার্সিংহোম থেকেই মৃণাল মুখোপাধ্যায়ের দেহ কেওড়াতলা মহাশ্মশানে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানেই রাতের মধ্যে সম্পন্ন হবে শেষকৃত্য।