শিমারি গাউনে চোখ কপালে তুললেন দেবলীনা কুমার। নিজেকে আগুনের মত হট এবং বরফের মত ঠান্ডার সঙ্গে তুলনা করলেন। ছবি দেখে ইতিমধ্যেই মুগ্ধ হয়েছে ভক্তরা। প্রসঙ্গত লকডাউনে ফিটনেস তো দূরের বিষয়, সকলের নিত্যদিনের রুটিন গিয়েছিল বদলে। এখনও অবশ্য বদলায়নি সেই অভ্যেস। যার জেরে শরীরের মধ্যে দেখা দিচ্ছে নানা অসুস্থতা। তাই শরীরের বিভিন্ন অসুস্থতা কাটাতেই এলেন দেবলীনা কুমার। টলিউড নায়িকার ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল ফিটনেসের নয়া মন্ত্র নিয়ে অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে হাজারও মানুষকে। 

আরও পড়ুনঃদার্জিলিং ট্যুর থেকে ফ্যাশনের সাতকাহন, আপনার গাইড এখন মনামী

ভারী বার্বেল তুলে অবাক করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায় হলেন ভাইরাল। টানা কয়েক বছরের কঠোর পরিশ্রম। ভারি চেহারা থেকে ছিপছিপে ফিট চেহারায় আসতে খাটনি কম ছিল না দেবলীনা কুমারের। সেই ছবি পোস্ট করলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। ফ্যাট থেকে ফিট। নিজের একাল সেকাল তুলে ধরলেন নেটদুনিয়ার পাতায়। চেহারা ভারি ছিল তবে ফিট ছিলেন দেবলীনা।লকডাউনের বিনোদনের সুরাহা ছিল দেবলীনা কুমারের ইনস্টাগ্রাম। এখনও তাই আছে। লকডাউনের সময় এবং লকডাউনের পরও দেবলীনার নানা পোস্টে মনোরঞ্জন খুঁজে পেয়েছে নেটিজেনরা। 

আরও পড়ুনঃতৃষার সঙ্গে কি বাড়ছে কর্ণের ঘনিষ্ঠতা, ফের ভুল বুঝল রাধিকা

আরও পড়ুনঃমনোক্রমে ধরা দিলেন মিথিলা, ভাইরাল হলেন বাংলাদেশি সুন্দরী

তাঁর ফিটনেসের পোস্টগুলিও দ্রুতগতিতে ভাইরাল হয় নেটদুনিয়ায়। লকডাউন চলাকালীন জিমে যেতে না পারেননি, তবুও নিয়মিত ওয়ার্ক আউট করে গিয়েছেন বাড়িতেই। ওয়ার্ক আউটেরই ফল হল টোনড ব্যাক। কখনও ওয়েস্টার্ন ব্যাকলেস পোশাকে। তো কখনও শাড়ির ব্লাউজের খোলা পিঠে নজর কেড়েছেন দেবলীনা। নেটিজেনের অবশ্য তাঁকে বেশি পছন্দ শাড়িতেই। কারণ তাঁদের মতে শাড়ির ওই ব্যাকলেস ব্লাউজেই বেশি মানায় দেবলীনাকে।