চিকুর সঙ্গে খেলায় মত্ত মিমি চক্রবর্তী। মা-ছেলের খেলাতেই মজেছে গোটা নেটদুনিয়া। মিমি ও চিকুর খেলায় আদর, ভালবাসার ছড়াছড়ি। সেই ভালবাসার খানিকটা অংশ ভাগ করে নিলেন মিমি। লিখলেন, 'ভালবাসা রইল অনেকটা'। কার জন্য এই বার্তা, ভক্তদের জন্য নাকি বিশেষ কারও জন্য। সেই নিয়েই প্রশ্নের ছড়াছড়ি সোশ্যাল মিডিয়ায়। প্রসঙ্গত, পুজোর আর মাত্র কয়েকদিন। ইতিমধ্যেই সমস্ত প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন মিমি চক্রবর্তী। এক ব্র্যান্ডের পোশাক পরে একরকম নিজের ফ্যাশন লাইন লঞ্চ করলেন বলা যেতে পারে। সেই ভিডিও শেয়ার করেন নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় হ্যান্ডেলে। গান ও ফ্যাশনেই তৈরি হয়েছে পুজোর অ্যান্থেম। মিমি গাওয়া আঞ্জনা গানের মুক্তির এক বছর সম্পন্ন হতেই একাধিক চমক নিয়ে হাজির হয়েছিলেন।

আরও পড়ুনঃঅন্তর্বাসের উপর জড়ানো ডেনিম শার্ট, এমন অবতারে প্রথমবার ধরা দিলেন মনামী

প্রতিযোগিতা ছাড়াও এবার লাইভ সেশনে নিয়ে আসছে সারপ্রাইজ। মিমি সেখানে প্রতিযোগিতা নিয়ে কথা বলেও রেখেছিলেন অন্যান্য চমক। মিমি নিয়ে এসেছিলেন ভক্তদের জন্য একের পর এক বিশেষ উপহার। উপহারের সঙ্গে জড়িয়ে ছিল মিমি চক্রবর্তীর ইউটিউব চ্যানেল এবং সঙ্গীতের পথ। বছর দুয়েক ধরে তিনি নিজের অভিনয় দক্ষতা ছাড়াও গানের প্রতিভাও প্রকাশ্যে এনেছেন সকলের। যার জেরে তাঁর জনপ্রিয়তা কয়েক গুণ বেড়ে গিয়েছে। ফলোয়াড়ের সংখ্যা, ভক্তদের সংখ্যাও ক্রমশ বেড়েই চলেছে। মিমির গান আঞ্জানার এক বছর পূর্তিতেই এই উপহারের বন্দবস্ত করেছিলেন। 

আরও পড়ুনঃমেয়ে সারা মাদকচক্রে জড়িয়ে, কোনও সাহায্য নয় সইফের, তবে কি লজ্জায় মুখ ফিরিয়ে নিলেন অভিনেতা

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

sending u love

A post shared by Mimi (@mimichakraborty) on Sep 27, 2020 at 2:15am PDT

আরও পড়ুনঃকলকাতা থেকে লন্ডন, এয়ারপোর্ট লুকে করিনা-দীপিকাকে টেক্কা নুসরতের

যার জন্য একটি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে হয় ভক্তদের। সাবস্ক্রাইব করতে হয়েছিল তাঁর ইউটিউব চ্যানেলকেও। চোখ রাখতে হয় তাঁর ইনস্টাগ্রাম পেইজে। প্রকাশ্যে এনেছিলেন প্রতিযোগিতার প্রশ্নগুলি। নিজের ইনস্টাগ্রামে ভিডিওর মাধ্যমে প্রশ্নগুলি রেখেছিলেন তিনি। ইতিমধ্যেই একের পর এক জবাবে ভরিয়ে দিচ্ছে ভক্তরা। প্রতিযোগিতা চলছিল জোর কদমে। কলকাতার রাস্তায় রাতের অন্ধকারে হেনস্তার শিকার হয়েছিলেন অভিনেত্রী সাংসদ মিমি। অভিযোগ দায়ের করে গ্রেফতারও করান সেই হেনস্তাকারীকে। মিমির উচিত শিক্ষায় সেই ট্যাক্সি চালককে কয়েকদিন রাত কাটাতে হয়েছে জেলের চার দেওয়ার মাঝেই।