আমাদের পাঠ ভবন, আমাদের সত্যজিৎ। এইভাবে ছোট থেকে গর্ব করে এসেছি নিজের স্কুলের প্রতি। সত্যজিৎ রায়ের হাত ধরেই বালিগঞ্জের গড়ে ওঠে ডেল্টা হাউজ। স্কুলের লোগো থেকে শুরু করে, 'জয় বাবা ফেলুনাথ'র প্রেমিয়ার স্কুলে বসে দেখানো, এমন অনেক অজানা কথা আছে যা সত্যজিৎ এবং পাঠ ভবনের মধ্যেই সীমিত। পাঠ ভবনের প্রাক্তনী হিসেবে সত্যজিৎ রায়ের ১০০ তম জন্মবার্ষিকীতে সে কথাগুলি না বলে শ্বাস ফেলতে পারছি না।

আরও পড়ুনঃমগনলাল-মন্দার-আচার্য মশাই, দর্শকের মনে আলাদা জায়গা করে আজ বিরাজমান সত্যজিতের 'দুষ্টু লোক'

কুশল চক্রবর্তী 'সোনার কেল্লা' ছবিতে মুকুলের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন। সত্যজিৎ রায় যেহেতু স্কুলটিকে নিজে হাতে বহু যত্নে ও ভালবাসায় তৈরি করেছিলেন তাই স্কুলের প্রতি সম্পূর্ণ ভরসা ছিল তাঁর। কেবল কুশলকে মুকুলের চরিত্রে নয় 'গুপি বাঘা ফিরে এল' ছবির প্রত্যেকটি বিক্রমই পাঠ ভবনের ছাত্র। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে ছাত্রদের মধ্যে থেকে বেছে নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। 

আরও পড়ুনঃবিজয়ার গয়না বিক্রি থেকে নিজের শেষ সম্বলটুকু হারানো, 'পথের পাঁচালী'র প্রতি ফ্রেমে লেখা সত্যজিতের সংগ্.

যদিও আসল বিক্রেম অর্থাৎ কানুর চরিত্রে যিনি অভিনয় করেছিলেন তিনি আদপে একজন মহিলা। নিজের ছবিতে ছাত্র-ছাত্রীদের কাস্ট করা ছাড়াও স্কুলের লোগো, নানা ধরণের অনুষ্ঠান, এমনকি পরিকাঠামো নিজে তৈরি করে গিয়েছেন তিনি। পাঠ ভবনের প্রতিটি ইঁটে আজও তাঁর নাম। লকডাউনের কারণে সত্যজিত রায়ের ১০০ তম জন্মবার্ষিকীতে স্কুলে কোনও অনুষ্ঠান হচ্ছে না ঠিকই। তবে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পালিত হচ্ছে 'রে ডে'।

আরও পড়ুনঃসাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল

আরও পড়ুনঃকরোনা মোকাবিলায় রক্ষা করুন নিজেকে, মেনে চলুন 'হু' এর পরামর্শ

আরও পড়ুনঃশরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা