পুরনো সবকিছুই যে কিছুই  পিছুটান রেখে যায়, নতুনের সঙ্গে বোধয় এভাবেই  মিশে তৈরি করে ফিরে দেখার ফিউশন। তবে এবার আরও একধাপ ছাড়িয়ে গেল। টিক টক ভিডিও তে মধুবালা ফিরলেন প্রিয়াঙ্কার খান্দওয়ালের লিপে। তবে পার্থক্য এটাই মধুবালার ছবির গান 'হাল ক্যায়সা হে জনাব কা' আগে থেকেই বিখ্যাত। এবার সেই গান গেয়ে বিখ্যাত হলেন প্রিয়াঙ্কা।    

ইতিমধ্যেই  'টিক টক কি মধুবালা' ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। তিনি সেই ভিডিও তাঁর টুঁইটার এ, শেয়ার করেছেন। ' আচ্ছা জি ম্যায় হারি', 'দেখনে মে ভোলা হ্যায়' মধুবালার ছবির প্রায় সব সেরা গান গুলিই তিনি গেয়েছেন। তবে প্রিয়াঙ্কা শুধু গান গেয়েই থেমে থাকেননি। মধুবালার সেই নস্টালজিয়া ফিরিয়ে আনার জন্য টিক টক ভিডিও এর ফ্রেমটাও সাদা কালো রেখেছেন। এত ভেবে চিন্তে বিস্তারিত ভাবে আবহ কে তুলে নিয়ে আসার পরও প্রিয়াঙ্কা কিন্তু অন্য কথা বলছেন। তিনি নিজেই টুইট করে জানিয়েছেন,যে তিনি নাকি  টিক টক ভিডিও নিছকই মজাচ্ছলে বানিয়েছেন।অবশ্য এরইমধ্যে প্রিয়াঙ্কা প্রচুর শুভেচ্ছা পেয়েছেন। তার অনেক ভক্ত তৈরি হয়ে গেছে। তারই মধ্যে একজন প্রিয়াঙ্কাকে বলেছেন, 'টিক টক কি মধুবালা' তে তাঁকে নাকি একদম মধুবালার মতই লাগছে।   

যাইহোক মধুবালা এখনও মানুষের হৃদয়ে একই ভাবে দোলা দেন। গত বছর 'আন্তর্জাতিক নারী দিবসে', নিউইয়র্কের একটি সংবাদ সংস্থা মধুবালাকে 'অসাধারণ মহিলা' বলে সম্বোধন করেছেন। তাই টিক টকের টাইম মেশিনে এভাবেই যেনও ভালবাসায় আর নস্টালজিয়ায় অমর হয়ে থাকলেন মধুবালা।