এখনো সোশ্যাল মিডিয়ায় সুশান্ত রিয়া নামটা সামনে আসা মাত্রই ভাইরাল হয়ে ওঠে। তাদের ঘিরে যে কোন খবরই যেন ভক্ত মহলে হটকেক। আর সেই সুযোগ নেই বেশ কিছু মানুষ ব্যবসা করে চলেছে, রোজগার করছে বিপুল। তবে সেখান থেকেই যে বড়োসড়ো বিপদের সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, তা অনেকেই ভুলে যায়, যেমন ভুলে গিয়েছিলেন ইউটিউবার রশিদ সিদ্দিকি।

চটপটে খবর পরিবেশন করা মানেই সাবস্ক্রাইবার বাড়বে বাড়বে লাইক। সঙ্গে বাড়বে উপার্জনও। এই পদ্ধতি বর্তমানে নেটদুনিয়া ভরে উঠেছে বিভিন্ন গল্প। লকডাউন এর সময় যখন মানুষের কাছে বিনোদন বন্ধ ছিল এক কথায়, তখন তাদের আনন্দ যুগিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। আর সেখান থেকেই রোজগারের নতুন রাস্তা পেয়েছেন ইউটিউবাররা। তাহলে অক্ষয় কে নিয়ে মিথ্যা খবর। জিয়াকে নাকি কানাডায় পালিয়ে যেতে সাহায্য করেছিলেন অক্ষয়। এমনই খবর শেয়ার করেছিলেন এই রশিদ নামক ব্যক্তি।

 

মুহূর্তেই খবর হুহু করে ছড়িয়ে পড়েছিল নেট দুনিয়ায়, বেড়ে গিয়েছিল সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা। গত 3 মাসে এই রাশির উপায় করেছেন দশ লক্ষেরও বেশি টাকা। ভাই হওয়া ভিডিও চোখে পড়ে অক্ষয়ের। মুহূর্তে তিনি মানহানির মামলা ঠুকে 500 কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেন। বর্তমানে তাঁর আইনজীবী সমস্তটাই লিখে পাঠিয়েছেন রশিদ নামক ব্যক্তিটিকে।