অমিতাভ বচ্চনের ভক্তদের কাছে আজকের দিনটা খুব একটা অপরিচিত নয়। কারণ এই দিনই এক প্রকার মৃত্যর মুখ থেকে ফিরে এসেছিলেন তিনি। ১৯৮২ সাল, চলছিল পুকার ছবির শ্যুটিং। সেখানেই গুরুত্বর চোট পেয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন। বেশ কিছুদিন জ্ঞান হারিয়ে ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। খবর পাওয়া মাত্রই ভক্তদের মধ্যে রীতিমতন শোরগোল পড়ে গিয়েছিল। 

আরও পড়ুনঃ দিয়া মির্জার বিবাহ বিচ্ছেদের পেছনে কে! নাম উঠে আসায় সোশ্যাল মিডিয়ায় সবর এই তারকা

 

 

সেই সময় ২রা অগাস্টই জ্ঞান ফিরে পেয়েছিলেন তিনি। ফলে অনেকেই আজ তাঁর দ্বিতীয় জন্মদিন বলেই জানেন। শুভেচ্ছআও জানান অনেকে। এই বছরও তার ব্যাতিক্রম হল না। ফলে অমিতাভ বচ্চন নিজেই শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করলেন সেই খবর। 

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

#throwbackthursday taken in the mid 80's ( 1985 if memory serves). I call it Big B and the Bachchan bunch. Dad was hospitalised with Mysthenia Gravis and my sister, cousins and I had gone to visit him. Being too young to understand what all was going on our parents always made it out to be like an outing so that we would not be disturbed by the hospital and its workings. When I used to visit my father after his accident on the sets of "Coolie" in 1982, seeing him connected to many drips and machines, he used to tell me they were kites that he had got for me. I was 6 yrs old. My father was fighting for his life and all I thought about was... why isn't he allowing me to play with these kites??? The innocence of childhood I guess.

A post shared by Abhishek Bachchan (@bachchan) on May 31, 2017 at 8:47pm PDT


সোশ্যাল মিডিয়াতে ভক্তদের উদ্দেশে লেখেন, অনেকেই আছেন যাঁরা এই দিনটির কথা মেন রেখে আজও ওঁনাকে শুভেচ্ছা জানান। তাঁকে ঘিরে অনেক চিন্তাভাবনা, যার জন্য তিনি নিজেকে ভাগ্যবান বলেও মনে করেন। সঙ্গে তিনি এও জানান যে এই ঋণ কখনও শোধ করার নয়। ১৯৮২ সালে তিনি ক্ষণিকের জন্য হলেও মৃত্যুর মুখে চলে গিয়েছিলেন। তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেওয়ার আগে প্রায় মৃত বলেই ঘোষণা করতে চলেছিলেন ডাক্তাররা। কিন্তু হাজার হাজার মানুষের ভালোবাসায় তিনি আবার প্রাণ ফিরে পান, বলেই দাবি অমিতাভ বচ্চনের।