অনুষ্কা শর্মার সঙ্গে তাঁর দাদা কার্নেশের ছেলেবেলার ছবি রীতিমত ভাইরাল হয়ে চলেছে নেটদুনিয়ায়। লকডাউনে বিনোদনের জোগান দিতে যথেষ্ট খাটাখাটনি করে চলেছে সকল সেলেব্রিটিরা। থ্রোব্যাক যেহেতু এখনকার সোশ্যাল মিডিয়া ট্রেন্ডের মধ্যে সেরা, তাই অনুষ্কাও সেই ট্রেন্ড থেকে পিছপা হলেন না। ভাইয়ের সঙ্গে ছোটবেলার ছবি শেয়ার করে ভাইরাল ক্যুইন হয়ে উঠেছে। একের পর এক মন্তব্যে ভরছে কমেন্ট সেকশন। অনুষ্কার বাবলিনেস যে ছোটবেলাতেও একই রকম ছিল তা এই ছবি দেখেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত, আইনি বিপাকে জড়িয়ে পড়েছেন অভিনেত্রী।

বিজেপি এমএলএ নন্দকিশোর গুর্জরের থবি বিনা অনুমতিতে ব্যবহৃত হয়েছে অনুষ্কা শর্মার 'পাতাল লোক'-এ। এমনই অভিযোগ এনে অনুষ্কার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন নন্দকিশোর। তাঁর কথায় পাতাল লোকের একটি দৃশ্যে ফিকশনাল কোরাপ্টেড এক রাজনৈতিক ব্যক্তির সঙ্গে তাঁর ছবি বসানো হয়েছে। সিরিজটিকে জাতিবিদ্বেষী বলেও দাবি করেছেন তিনি। বাজপেয়ী হল এই শোয়ের ভিলেন। তাঁকে একটি হাইওয়ের উদ্বোধন করতে দেখা যাচ্ছে। সেখানে গুর্জর ঠিক পিছনেই দাঁড়িয়ে রয়েছেন। আসল ছবিতে উদ্বোধনে ছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। আসল ছবিটি ২০১৮ সালের। গুর্জর এও দাবি করেছেন, সিরিজটির উদ্দেশ্য হল বিজেপির বিরুদ্ধে মানুষকে উস্কানো।  

 

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

❤️

A post shared by ɐɯɹɐɥS ɐʞɥsnu∀ (@anushkasharma) on May 25, 2020 at 10:30pm PDT

 

এতদিন 'পাতাল লোক'র প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিল নেটদুনিয়া। হঠাৎই শুরু হল রঙবদলের খেলা। ঘুরে গেল টেবিল। সিরিজটি নিয়ে ইতিমধ্যেই একাংশ নেটিজেন জানিয়েছে ব্যান করার দাবি। তাদের দাবি হিন্দুফোবিয়া ছড়াচ্ছে সিরিজটি। সিরিজে হিন্দুদের ভিলেন দেখিয়ে হিন্দু ধর্মের বিরুদ্ধে করছে দর্শকদের। অঙ্কুর সিং নামক এক ব্যক্তি ট্যুইট করে লেখেন, যেখানে বাস্তব জীবনে ডন, ভিলেন হল আদপে মুসলিম সেখানে সিরিজগুলিতে দেখানো হচ্ছে হিন্দুরাই ভিলেন। সিরিজে অভিনয় করেছেন নীরজ কবি, গুল পনাগ, জয়দীপ আলাওয়াট, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, অনিন্দিতা বসু।