সলমন খানকে নিয়ে এক কথায় নেট-দুনিয়ায় উঠল বিতর্কের ঝড়। একশ্রেণীর মানুষ স্বজন পোষণ নিয়ে প্রশ্ন তোলে তোপ হানলেন অভিনেতার ওপর, অন্য শ্রেণীর মানুষেরা আবার সলমন খানের পক্ষ নিয়ে জড়ালেন বাকবিতণ্ডায়। এমনই সময় বচসা উষ্কে দাবাং পরিচালক অভিনব কাশ্যপ একাধিক মন্তব্য করে বেসন বিইং সলমন খানের নামে। সেখান থেকেই শুরু বিবাদ। পরিচালকের মন্তব্য ভাইরাল হলেও চুপ করে থাকার পাত্র নন খানেরা। 

আরও পড়ুনঃ বার্ধক্য গ্রাস করেছে আমিরকে, ধূসর চুলের নয়া লুকে ভক্তদের চমক অভিনেতার

পরিচালককে যোগ্য জবাব দিতেই এবার আইনি পথে হাঁটলেন সলমন খান ও আরবাজ খান। সম্প্রতি এক সংবাদ মাধ্যমকে আরবাজ খান জানিয়েছেন তিনি এভাবে কোনও বচসা চান না। আমরা ইতিমধ্যেই আিনি পদক্ষেপ নিয়েছি। এই ধরনের মন্তব্যের সঠিক উত্তর দেওয়ার মাধ্যমকেই বেছে নেওয়া হয়েছে। অভিনব কাশ্যপ সরকারকেও জানিয়েছিলেন যে, সলমন খানের বিষয় খতিয়ে দেখা হোক। তাতেই বিষয় বিগরে যায় আরও। 

সুশান্তের মৃত্।ুর পর একে একে নেটদুনিয়ায় স্বজন পোষণ, বলিউড মাফিয়া, গডফাদার, নেপোটিজম নিয়ে প্রকাশ্যে কথা বলা শুরু করেছে। অনেকেই চেপে থাকা না বলা কথাগুলোও এমন সময় তুলে ধরার সাহস পাচ্ছেন। এমনই পরিস্থিতিতে দাবাং ছবির পরিচালক একটি দীর্ঘ পোস্টে লিখেছিলেন, সলমন খানের সব কিছুই লোক দেখানো। তিনি মাত্র পাঁচটি সাইকেল দান করেছিলেন, কিন্তু পরের দিন খবর হয়েছিল তিনি দিয়েছেন মোট ৫০০০ টি সাইকেল। এরপরই বয়কট সলমন খানের ডাক উঠেছিল নেট-পাড়ায়।