আশির দশক থেকে আজও রামায়ণের জনপ্রিয়তা শীর্ষে। সেই জনপ্রিয়তা গড়েছে বিশ্ব রেকর্ড। আশির দশকে যখন রামায়ণ প্রথম সম্প্রচার হয় তখন থেকেই ধারাবাহিকটি নিয়ে দর্শকের মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে। সম্প্রতি রামায়ণের পরিচালক রামানন্দ সাগরের ছেলে প্রেম এক সাক্ষাৎকারে জানান, বিবিসি রামায়ণের রাইটস কিনতে চেয়েছিল। তারা রামায়ণ সম্প্রচারের বিষয় ভাবনা চিন্তা করেছিলেন। সেমত রামানন্দ সাগরের সঙ্গে কথা বলতে এলেই তিনি সরাসরি নাকোচ করে দেন। এই প্রস্তাব নাকোচ করার পিছনে ছিল একটি বড় কারণ। 

আরও পড়ুনঃ'রিল্যাক্স আমি এমএলএ নই', বাংলার দিকে চোখ তুলে তাকাতে বলায় কী জবাব দিলেন নুসরত

সে কথাই খোলসা করলেন প্রেম। তিনি জানান, রামানন্দ চাননি পাশ্চাত্যের সংস্কৃতির সঙ্গে ভআরতের সংস্কৃতি গুলিয়ে যাক। বিবিসি এশিয়ান দর্শক টানাই ছিল বিবিসির মূল লক্ষ্য। আর তা করতে গেলে রামায়ণের সম্প্রচার করাটাই ছিল প্রধান পদক্ষেপ। রামানন্দ কেবল একাই নন, রামায়ণের গোটা কলাকুশলী মিলে এই প্রস্তাবে নাকোচ করে দেয়। তিন দশক আগে ঠিক কী ঘটেছিল কনট্র্যাক্ট সই করার সময় জানালেন প্রেম। কনট্র্যাক্টে সই করার আগেই রামানন্দ এবং অরুন গোভিলকে এখ সাক্ষাৎকারে ডাকা হয়েছিল।

আরও পড়ুনঃবাবার বিরুদ্ধে গিয়ে মিউজক ভিডিওর প্রস্তাবে রাজি হন শেফালি, মুহূর্তে জনপ্রিয় 'কাঁটা লাগা গার্ল'

প্রেম জানান, "আমি, বাবা, অরুন গোভিল এবং অরবিন্দ ত্রিবেদী (রাবণের চরিত্রে অভিনয় করেন) লিভারপুল স্টুডিওসে যাই কনট্র্যাক্ট সই করার আগে। সেখানে গিয়ে জানতে পারে তারা আমাদের টেলিকাস্ট রাইটস কিনেত চায়, পাশাপাশি অরুন গোভিলকে রামের বেশে সাজিয়ে বিবিসি স্টুডিওতে প্যারেড করাতে চায়। এই প্রস্তাব নিয়ে আমি এবং বাবা ভাবনা চিন্তা করে বুঝতে পারি রামের ঐশ্বরিক মূর্তিকে ভাঙার চেষ্টা করা হচ্ছে। আমরা সঙ্গে সঙ্গে বারণ করে দিই।"

আরও পড়ুনঃশরীরে কীভাবে থাবা বসায় করোনা, জানালেন বিশেষজ্ঞরা

আরও পড়ুনঃকী করে করোনার হাত থেকে রক্ষা করবেন আপনার বাড়ির বয়স্ক সদস্যদের, রইল তারই টিপস

আরও পড়ুনঃসাবধান, করোনা আতঙ্কের মধ্যে এই কাজ করলেই হতে পারে জেল