বিগ বস, এখনও পর্যন্ত যখনই এই রিয়্যালিটি শো-এর আবির্ভাব হয়েছে তখনই এর টিআরপি ছাপিয়ে গিয়েছে অনেককেই। সলমনের পরিচালনায় বিগ বসের ঘরে এবং বাইরে সকলেই মুগ্ধ। আর সেই সঙ্গে তো রয়েছেই ঘরের ভিতরের জমজমাট কেমিস্ট্রি। আর এই জনপ্রিয় রিয়্যালিটি শো এবার সমস্যার সম্মুখীন। এই শো-কে নিষিদ্ধ করার দাবি তুললেন এক বিজেপি বিধায়ক। 

ঠিক কী ঘটেছে?
সলমন খানের বিগ বস ১৩-কে নিষিদ্ধ করার দাবি নিয়ে সরব হলেন গাজিয়াবাদের বিজেপি বিধায়ক নন্দ কিশোর গুজ্জর। ইতিমধ্যেই তিনি তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরকে এই শো প্রদর্শন বন্ধ করে দেওয়ার জন্য একটি চিঠিও লেখেন। 

বিহারে বন্যা দুর্গতের পাশে বিগ-বি, বাড়িয়ে দিলেন সাহায্যের হাত

এই চিঠিতে নন্দ কিশোর জানিয়েছেন, বিগ বস সম্পূর্ণ অশ্লীল বিষয় প্রদর্শন করছে এবং তার প্রচার করছে। এই শো পারিবারিক শো নয়। দেশের সংস্কৃতি বিরোধী এই রিয়্যালিটি শো-তে বারবার আপত্তিজনক দৃশ্য তুলে ধরা হচ্ছে। বিভিন্ন সম্প্রদায় থেকে আসা প্রতিযোগীদের একই বিছানা ভাগ করে নিতে হচ্ছে, যা গ্রহণযোগ্য নয় বলে সরব হয়েছেন ওই বিজেপি বিধায়ক। 

তিনি তার চিঠিতে আরও জানিয়েছেন, একদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশের হৃত গৌরব পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করছেন, অন্যদিকে সেখানেই এই ধরণের শো দেশের সংস্কৃতিরে নীচের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। তাই ভবিষ্যতে যাতে এই ধরণের কোনও ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় তার জন্য টেলিভিশনে প্রদর্শিত ধারাবাহিক থেকে রিয়্যালিটি শো, সবকিছুর ওপর সেনসরের দাবিও তোলেন নন্দ কিশোর। এই বিজেপি বিধায়কের পাশাপাশি, ব্রাহ্মণ মহাসভাও এই রিয়্যালিটি শো বন্ধের দাবি তোলে। এই মর্মে ইতিমধ্যেই ব্রাহ্মণ মহাসভা একটি মেমোরেনডাম গাজিয়াবাদ ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট-এর কাছে জমা করেছে। 

অভিনয়ে বিন্দুমাত্র আগ্রহ ছিল না রেখার, জন্মদিনে চিনে নিন চিরসবুজ বলি অভিনেত্রীকে

আবার উত্তরপ্রদেশের নবনির্মাণ সেনার প্রেসিডেন্ট ঘোষমা করেন, বিগ বস ১৩ বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত তিনি অনশন করে যাবেন। তিনি বলেন, সরকার যতক্ষণ না কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন ততক্ষণ তিনি ফল এবং সবজি খেয়েই দিন কাটাবেন, অন্য কোনও কিছু মুখে তুলবেন না। 

প্রসঙ্গত, চলছে বিগ বসের ১৩ সিজন। সেখানে যেমন রয়েছে সেলেব ফিগার, তেমনই রয়েছে সাধারণ ব্যক্তিরাও। কে শেষ পর্যন্ত লড়াই করে নিজের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে পারবে তা জানতে অবশ্য অপেক্ষা করতেই হবে।