করোনা নিয়ে এখনও বিশ্বজুড়ে সতর্কতা তুঙ্গে। কখনও সামনে উঠে আসছে ভ্যাকসিনের সুখবর, কখনও আবার আতঙ্ক ছডাচ্ছে দ্বিতীয় ঢেউ। এরই মাঝে খানিক স্বাভাবিক পরিস্থিতি। ধীরে ধীরে খুলেছে বিভিন্ন সেক্টরের দরজা। এই সময় সতর্কতা বেশিমাত্রায় প্রয়োজন। তাই ফোনে কলারটিউনে এখনও বেজেই চলছে সেই সতর্ক বার্তা। এতেই বেজায় সমস্যায় পড়েছে সাধারণ মানুষ। 

আরও পড়ুন- আপনি যখন আপনার মেদ নিয়ে চিন্তুত, তখনই ওজন সহজে কমানোর সত্যি গল্প বলল এক তরুণ

করোনার সতর্কবার্তা শুনতে গিয়ে বিশেষ বা জরুরী কোনও ফোন ঢুকতে হয়ে যাচ্ছে দেরি। তাতেই বিপাকে পড়তে হচ্ছে সকলকে। প্রয়োজনে খবর দিতে হয়ে যাচ্ছে দেরী। বিপদের সময় মানুষকে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না। এতে সমস্যা বাড়ছে বলে এবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ জনস্বাধারণ। করা হল জনস্বার্থ মামলা। অমিতাভ বচ্চনের গলায় শোনা এই করোনার সতর্কতা বানী অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। 

 

এর আগেই এমনটাই দাবী উঠেছিল সর্বত্র। কেন অমিতাভ বচ্চনের কণ্ঠেই শুনতে হবে এই সতর্কবার্তা। তিনি নিজেই করোনায় আক্রান্ত। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছিল রাতারাতি সেই ঝড়। কাস্টোমার কেয়ারে ফোনের পর ফোন ঢুকতে থাকে। যদিও তা সরানো সম্ভবপর নয়, এমনটাই জানিয়ে ফোন রেখে দেওয়া হয়। সেই অডিও ভাই ভাইরাল হলেও এবার সরাসরি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়।