মাত্র দুটি ছবিতে অভিনয় করেই দর্শকদের মুগ্ধ করেছেন সারা আলি খান। অভিনয়ের পাশাপাষি তাঁর সৌন্দর্যেও মুগ্ধ নেটিজেনরা। তবে প্রথম থেকেই সারার পথ এত মসৃণ ছিল না। এক সময়ে তাঁর ওজন ছিল ৯৬ কেজি। এখন সারার ওজন ৪৬ কেজি।

৫০ কেজি ওজন কমাতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে সেফ কন্যা সারাকে। দিন কয়েক আগেই একটি চ্যাট শো-য় এসে সারা জানিয়েছিলেন, তিনি পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোমে (পিসিওএস) ভুগছিলেন। হরমোন জনিত এই রোগের জন্যই মাত্রাতিরিক্ত ওজন বেড়ে যায় সারার। পিসিওএস-এর ফলে ওজন কমাতেও অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে সারাকে। সেই দুঃসময় কাটিয়ে সারা এখন সুস্থ ও ত্বন্বী।

পিসিওএস-এ এই মুহূর্তে বহু মহিলা ভুগছেন। অনেকেই সারার মতোই ওজন অতিরিক্ত বাড়িয়ে ফেলেছেন। ওজন বাড়লে পিসিওএস আরও বেশি করে শরীরে জাঁকিয়ে বসে। তাই এই রোগে আক্রান্ত মহিলাদের ডায়েটের উপর গুরুত্ব দেওয়া প্রয়োজন। সারাও ওয়ার্কআউটের পাশাপাশি ডায়েটেও অনেক নিয়ম মেনে চলেছেন। জেনে নেওয়া যাক ওজন কমাতে সারা কী কী খেয়েছেন-

  • চিকিৎসকরা সব সময়েই ভারী ব্রেকফাস্ট করার পরামর্শ দেন। লাঞ্চ বা ডিনারের চেয়ে এই খাবার তুলনামূলক ভাবে বেশি ভারী হওয়া উচিত। সারা ব্রেক ফাস্টে খান ইডলি বা পাঁউরুটি। সঙ্গে ডিমের সাদা অংশ থাকে।
  • ওজন কমাতে লাঞ্চেও ফ্যাটহীন খাবার খেয়েছেন সারা। রুটির সঙ্গে ডাল, তরকারি ও স্যালাড খান। লাঞ্চের পরে কিছু ফল খান সারা।
  • লাঞ্চ ও ডিনারের মাঝেও কিছু স্ন্যাক্স খাওয়া উচিত। সারা এই এখনও সন্ধের স্ন্যাকস হিসেবে সুজির উপমা খান।
  • ডিনারে সবচেয়ে হালকা খাবার খাওয়া উচিত। ডিনারে সারা রুটির সঙ্গে কিছু সবুজ তরকারি খান।