অ্যাডমিট কার্ড নিয়ে বিভ্রান্তি এই প্রথম নয়। এর আগে সেলেব জুটির ছেলে মেয়েরা বা খোদ সেলেবরাই হাজার হাজার কলেজে ভর্তির আবেদন পাঠিয়েছিলেন। মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে উঠেছিল সেই মেরিট লিস্ট। মনে পড়ে!  চলতি বছর ভর্তির লিস্টে যখন নাম আসে তখন আশুতোষ কলেজ থেকে শুরু করে বজবজ কলেজে হু হু করে ছড়িয়ে পড়েছিল সেই মেরিট লিস্ট। এবার আবারও সেই একই কাণ্ড ঘটতে দেখা গেল ধনরাজ মাহাতো ডিগ্রি কলেজে। 

আরও পড়ুনঃ এই বিশেষ কারণেই বিরাট কোহলিকে বিয়ে করেছিলেন অনুষ্কা, বিবাহবার্ষিকীতে ফাঁস 'বিরুষ্কা'র গোপন তথ্য

ঠিক কী দেখা গেল অ্যাডমিট কার্ডে! বাবার নাম ইমরান, মা সানি, আর ছেলের নাম কুন্দন কুমার। তাঁর বয়স মাত্র ২০ বছর। তবে এখানেই শেষ নয়। চমক রয়েছে তাঁর ঠিকানাতেও। সেখানে যে জায়গার উল্লেখ রয়েছে, তা হল বিহারের এক যৌনপল্লী। আর এই অ্যাডমিট কার্ডই হাতে এলো কর্তৃপক্ষের। তবে তাঁদের সাফ ধারনা, এই বিষয়টা কেউ ইচ্ছাকৃত ভাবে ঘটাচ্ছে। একটা ভুল হতে পারে না। 

 

 

সেই অ্যাডমিট কার্ডের ছবিতেই এখন মেতেছেন নেট দুনিয়া। এর পেছনে কে তা ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রথমিক ভাবে অনুমান এই কাণ্ড ঘটিয়েছে কুন্দন কুমার নিজেই। আর এই ধরনের ভুল কলেজের কাছে এখন নতুন কোনও বিষয় নয়। মাঝে মধ্যেই এমন লিস্ট বা অ্যাডমিটকার্ডের ছবি সকলের সামনে উঠে আসছে যা মুহূর্তে বিতর্কের সৃষ্টি করছে।