বলিউডে দুঃসময় যেন আর কাটছে না। একের পর এক ইন্দ্রপতন হয়েই চলেছে। বলিউডের ইরফান খানের মৃত্যুর পর থেকেই যেন সংখ্যাটা থামছে না। ঋষি কাপুর, ওয়াজিদ খান, সুশান্ত সিং রাজপুতের মতোন অভিনেতারাও বলিউডকে বিদায় জানিয়েছে। গত ২ বছর ধরেই গুরুতর অসুস্থ রয়েছেন টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নিশি সিং ভাদলি। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে স্ট্রোক হওয়ার পরই তার শরীরের একটা অংশ প্যারালাইসিস  হয়ে যায়। তারপর থেকেই বাড়িতেই কাটছে তার দুর্বিসহ জীবন।

গত বছরের শেষের দিকে শারীরিক অবস্থার সামান্য উন্নতি হলেও ফের স্ট্রোকে আক্রান্ত হন নিশি। কিন্তু লকডাউনে চিকিৎসা, ওষুধের খরচ চালাতে গিয়েই হিমশিম অবস্থা নিশির। চরম আর্থিক সঙ্কটে মুখে পড়েছেন নিশির স্বামী অভিনেতা সঞ্জয় সিং ভাদলি।  চিকিৎসার খরচ জোগাতে গিয়েই আর্থিক সহায়তার আবেদন জানালেন অভিনেতা সঞ্জয় সিং ভাদলি। সাক্ষাৎকারে সঞ্জয় জানিয়েছেন, ২০১৯ সালে বাড়িতে পড়ে যান নিশি। তারপর ৭-৮ দিন ভর্তি থাকতে হয় হাসপাতালে। তারপরও খানিক সুস্থ হয়ে উঠলেও প্যারালিটিক স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে প্যারালাইসিস হয়ে পড়েন তিনি। দেহের কোনও অংশ এখন আর কাজ করছে না।

সঞ্জয় আরও জানিয়েছে, গত ২ বছর চিকিৎসায় সমস্ত সঞ্চয় শেষ হয়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই ফ্ল্যাটও বন্ধক রাখা হয়েছে। বর্তমানে চিকিৎসার জন্য অনেক অর্থের প্রয়োজন।  সাহায্যের জন্য নিজেদের পরিবারের কাছেও যেতে পারছি না। কারণ নিশির পরিবারের আর্থিক অবস্থা ভাল নয়, এবং বিনোদন জগতে পা দেওয়ার পর পরিবারও ত্যাগ করে আমায়। তার উপর লকডাউনে রোজগার প্রায় বন্ধের মুখে। নিঃস্ব হয়েই সাহায্যের আর্জি জানিয়েছেন অভিনেতা। হিটলার দিদি, কবুল হ্যায়, ইশকবাজ-এর মতো একাধিক জনপ্রিয় সিরিয়ালে অভিনয় করেছেন নিশি।